এবার মুখ খুললেন সাব্বির

ফেসবুকে বিতর্কিত মন্তব্য ও নানা কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে ইতোমধ্যে বাংলাদেশের ক্রিকেটে ‘ব্যাড বয়’ অপবাদ পেয়ে গেছেন সাব্বির রহমান। তাকে ৬ মাস আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ করতেও সুপারিশ করেছে বিসিবি। বিসিবি সভাপতির অনুমতি মিললেই সুপারিশটি কার্যকর হবে।

ঠিক এমন সময় নিজের দোষ স্বীকার করে কৃতকর্মের জন্য অনুতপ্ত হলেন সাব্বির। তিনি অনেক কিছু স্বীকারও করেছেন বলে জানিয়েছে বিসিবি সূত্র।

শৃঙ্খলাভঙ্গের দায়ে গতকাল শনিবার (১ সেপ্টেম্বর) শুনানির জন্য বিসিবি ডিসিপ্লিনারি কমিটি তলব করে সাব্বির রহমান ও মোসাদ্দেক হোসেনকে। শুনানির পর মোসাদ্দেককে সতর্ক ও সাব্বিরকে ছয় মাস নিষিদ্ধের সুপারিশ করে কমিটি।

সাব্বিরের বিরুদ্ধে সর্বশেষ অভিযোগ ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে। সফরচলাকীন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এক ভক্তকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেছিলেন তিনি। এর আগেও বেপরোয়া আচরণের জন্য একাধিকবার শাস্তি পেয়েছিলেন।

শুনানিতে এসে অনুতপ্ত সাব্বির বলেন, ‘আমি অনুতপ্ত। প্রতিজ্ঞা করছি- ভবিষ্যতে এ রকম কিছু করবো না।’

তার অন্যান্য কার্যকলাপের বিষয়ে সে কিছু বিষয় স্বীকার করেছে। ওই বিষয়ে তাকে নির্দেশনাও দেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

বছরের শুরুতেই ঘরোয়া ক্রিকেটে দর্শককে পেটানোর দায়ে বড় শাস্তিতে পড়েছিলেন সাব্বির। ছয় মাসের জন্য নিষিদ্ধ হন ঘরোয়া ক্রিকেট থেকে। আর্থিক দণ্ড দেয়া হয়। এছাড়া বাদ পড়েন বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকেও। এই শাস্তি থেকে মুক্তি মিলতে না মিলতেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দর্শককে গালিগালাজ ও মারধরের হুমকি দেয়ার অভিযোগ উঠে।

সাব্বির অবশ্য পরে দাবি করেন তার আইডি হ্যাক হয়েছিল। এর মাঝেই আবার ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে ড্রেসিংরুমে সতীর্থ খেলোয়াড়ের ওপর গায়ে হাত দেয়ারও অভিযোগ উঠে এই তরুণ ক্রিকেটারের বিরুদ্ধে। চার বছর আগে টেনিস সুন্দরী সানিয়া মির্জাকে ফেসবুকে উত্যক্ত করতেন বলেও সাব্বিরের নামে অভিযোগ আছে।