যেভাবে ঘুম নিয়ন্ত্রণে রাখবেন

শরীরের জন্য অতিরিক্ত কোনো কিছুই ভালো নয়। ঠিক তেমনিভাবে অতিরিক্ত ঘুমও ভালো নয়। তাই প্রতিদিন ঘুমাতে হবে মেপে মেপে। সাধারণত একজন পূর্ণবয়স্ক মানুষের জন্য দৈনিক ছয় থেকে সাত ঘণ্টা ঘুমই যথেষ্ট। আর শিশুদের জন্য প্রতিদিন নয় থেকে দশ ঘণ্টা ঘুম দরকার।
কিন্তু অনেক চেষ্টা করেও সময়মতো বিছানা ছাড়া কঠিন হয়ে পড়ে। তাই অল্প কিছু নিয়ম মেনে চলে প্রতিদিনের ঘুমকে আনতে পারেন আপনার নিয়ন্ত্রণে।

ঘুম নিয়ন্ত্রণে আনার প্রথম এবং সর্বোত্তম উপায় হলো প্রতিদিন একই সময়ে ঘুমাতে যাওয়া এবং একই সময়ে ঘুম থেকে উঠার অভ্যাসের জন্য চেষ্টা করা। চেষ্টা করুন প্রতিন রাত ১০টা থেকে ১১টার মধ্যে বিছানায় চলে যেতে। আর ভোর হওয়ার সাথে সাথে বিছানা ছাড়ুন। খেয়াল রাখতে হবে ছুটির দিনগুলোতেও এই রুটিন যেনো ভঙ্গ না হয়।

সকালে ঠিক সময়ে ঘুম থেকে উঠার জন্য নিজের ষষ্ঠ ইন্দ্রিয়ের ওপর ভর না করে ঘড়ির সাহায্য নিন। আপনার মন কোনোদিন ব্যর্থ হলেও ঘড়ি ঠিক সময়েই এলার্ম দেবে।

রাত দশটায় ঘুম না আসলে সন্ধ্যার পর চা-কফি পান করা বন্ধ করুন। ঘুমাতে যাওয়ার আগে আগে তো নয়ই। এছাড়া ঘুমাতে যাওয়ার অন্তত দেড় থেকে দু’ঘণ্টা আগে রাতের খাবার খেয়ে নিন। প্রথম প্রথম একটু কষ্ট হলেও পরে সয়ে যাবে।

ঘুমানোর জন্য বিছানায় গিয়ে মোবাইল বা ফেসবুক ব্যবহার কখনোই নয়। এক গবেষণায় দেখা গেছে, ঘুমাতে যাওয়ার আগে মোবাইল বা কম্পিউটার ব্যবহার আশঙ্কাজনকভাবে ঘুম কমিয়ে দেয়। তাই বিছানায় গিয়ে সোজা চোখ বন্ধ করে শুয়ে পড়ুন।

সবকিছু মেনে চলার পরও যদি ঘুম না আসে তাহলে বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ নিন। অনেক সময় রোগের কারণেও ঘুম দূর হয়ে যেতে পারে।