যে ৮ টি বিষয় কখনই অফিসের বসকে বলা উচিৎ না !

আপনার অফিসে আপনি হয়ত অনেকটাই সতর্কভাবে কথা বা চলাফেরা করে থাকেন। কর্মকর্তাদের সাথে কর্মচারীদের সম্পর্ক কোনো কোনো অফিসে বেশ মধুর হয়ে থাকে আবার কোনো অফিসে অনেক খারাপ হয়ে থাকে। ধরুন আপনার অফিসে আপনার বসের সাথে আপনার সম্পর্ক বেশ ভালো। সব ধরনের কথা আপনি আপনার বসের সাথে শেয়ার করে থাকেন। কিন্তু এমন কয়েকটা বিষয় বা কথা বসকে কখনই বলা উচিৎ নয় যাতে করে আপনার চাকুরিটি হয়ে পড়ে অনিশ্চিত।

যে ৮ টি বিষয় কখনই অফিসের বসকে বলা উচিৎ না!
১. আমি নতুন একটি চাকুরি খুঁজছি :
আপনি আপনার চাকুরিতে অনেক কারণেই হয়তবা সন্তুষ্ট না। বসের আচরণে বা কলিগদের আচরণে অথবা অন্য কোনো বিষয়ে আপনি আপনার অফিসের উপর বেশ ক্ষিপ্ত। এ কারণে আপনি নতুন চাকুরি খুঁজছেন। এটি কখনই অফিসের বসকে বলার বিষয় না। কেননা আপনি যদি গর্ব করে নতুন চাকুরি পাওয়ার আগে বলে ফেলেন যে আমি একটি নতুন চাকুরি খুঁজছি তাহলে হিতে বিপরীত হয়ে যেতে পারে। অর্থাৎ সময়ের আগেই আপনার বস আপনাকে চাকুরিটি ছেড়ে দেয়ার নির্দেশ দিতে পারেন। এতে করে আপনি পড়ে যেতে পারেন মহা বিপদে।

২. আমি তেমনটা ব্যস্ত নই এবং এর চেয়েও বেশি দায়িত্ব নিতে পারি :
আপনার বস আপনার সুযোগের সদ্ব্যবহার করবেন তখনই যখনই আপনি বলবেন যে আমি তেমনটা ব্যস্ত নই এবং এর চেয়েও বেশি দায়িত্ব নেয়া আমার জন্যে কষ্টের নয়। এই ধরনের কথা সচরাচর বসকে বলা থেকে দূরে থাকুন। এতে করে বস আপনার উপরে আরও বেশি দায়িত্ব দিয়ে দিবেন যার কারণে আপনার ব্যক্তিগত সময় বলে আর কিছুই থাকবে না।

৩. আপনি বেশ ভয়ানক :
বস যতই কড়া বা খারাপ মানুষ হয়ে থাকুক না কেন কোনোদিনই কোনোভাবেই তাকে খারাপ বা ভয়ানক মানুষ বলবেন না। তাকে সবসময় তেল দিয়েই চলা ভালো। তার খারাপ বৈশিষ্ট্যগুলোকে ভালো বলে ব্যাখ্যা দেয়ার চেষ্টা করুন। তা না করলে আপনার চাকুরিটি বেশ খানিকটা দ্বিধা-দ্বন্দের মধ্যে পড়বে।

৪. ভালোলাগা প্রকাশ করবেন না :
আপনার অফিসে এমনও হতে পারে যে আপনার কাউকে ভালো লেগেছে। আপনি তাকে অনেকটাই পছন্দ করে ফেলেছেন। এমতাবস্থায় কখনই তা বসে সাথে শেয়ার করতে যাবেন না। এতে করে আপনার ভালোলাগার ইতি ঐখানটাতেই টানতে হবে। খুব বেশিদিন ভালোলাগার সাথে থাকার সুযোগ পাবেন না।

৫. ভেবেছি আপনি দূরে কোথাও যাবেন আর আমরা একটু স্বাধীনভাবে চলব :
এই ধরনের কথা ভুলেও কখনও আপনার বসকে বলবেন না। বলেছেন তো ফেঁসেছেন। বসের যদি বাহিরে কোথাও যাওয়ার কথা থাকে তাহলে তা শুধু নিরবে দেখে যান। বলতে যাবেন না যে আপনি ঠিক কবে যাচ্ছেন বা কবে আসবেন। তাহলে তিনি ভাববেন আপনি হয়ত কাজে ফাঁকি দেয়ার চেষ্টা করছেন।

৬. আমি আপনার সাথে কথা বলতে চাইছি কিন্তু আপনি আমার প্রতি মনোযোগ দিচ্ছেন না :
আপনি হয়ত বসের সাথে কথা বলতে চাইছেন কিন্তু তার দৃষ্টি আকর্ষণ করতে পারছেন না। এক্ষেত্রে কখনই তা সরাসরি বলতে যাবেন না। বললে আপনি বেশ খানিকটাই বিপদে পড়বেন।

৭. আমি যতটা ভেবেছিলাম আপনি ততটা মজার লোক না :
আপনার বসকে কখনই বলবেন না যে আমি যতটা মজার লোক আপনাকে ভেবেছিলাম ততটা মজার লোক আপনি না। এই কথায় আপনার বস রেগে যেতে পারেন এবং আপনাকে অফিসের বাহিরে ট্রান্সফার করে দিতে পারেন।

৮. আসলে আমি আপনাকে মোটেই পছন্দ করি না :
মুখের উপরে বা সরাসরি কথা বলাকে অনেকেই হয়ত স্মার্টনেস বলে থাকেন। কিন্তু সব জায়গাতে সব ধরনের আচরণ শোভা পায় না। যেখানে কিছুটা নিজের স্বার্থ জড়িত সেখানে তো মোটেই এ ধরনের মন্তব্য করা উচিৎ নয়। আপনি বসকে এ ধরনের কথা বললে আপনার বস আপনাকে চাকুরি থেকে অপসারণ করে দেবেন এটা নিশ্চিতভাবেই বলা যায়।