আমি দুঃখিত, দয়া করে আমাকে নিষিদ্ধ করবেন না’

এই মুহূর্তে বিরাট কোহলিকে এক বাক্যে বিশ্বের সেরা ব্যাটসম্যান মনে করেন বেশিরভাগ ক্রিকেটবোদ্ধা। তাছাড়া ক্রিকেটে বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাবান দেশ ভারতের অধিনায়ক তিনি। জনপ্রিয়তা, ক্ষমতা, অর্থ, আধিপত্য কোনটিতেই কমতি নেই ২৯ ব্ছর বয়সী এই ভারতীয়র। আজকের ‘ক্ষমতাবান’ কোহলিই ২০১২ সালে বেশ বড়সড় একটা বিপদেই পড়েছিলেন।

সিডনি টেস্টে গ্যালারিতে থাকা দর্শকদের মধ্যমা দেখিয়ে বেশ বিপাকে পড়েছিলেন তিনি।অবশ্য কোহলির ক্যারিয়ার ঘাটলে এমন ঘটনা অনেকই পাওয়া যাবে। তবে তাকে সবচেয়ে বেশি বিপদে ফেলেছিল ওই সিডনির বিষয়টি। দর্শকদের উদ্যোশ্যে ওই বিশেষ ভঙ্গিমা করার কারণে বড়সড় নিষেদ্ধাজ্ঞার মুখে পড়েছিলেন ভারতীয় তারকা।

তিক্ত অভিজ্ঞতাটা এখনো ভুলেননি কোহলি। সম্প্রতি সেই সময়ের স্মৃতিচারণ করে জানান, দর্শকদের পক্ষ থেকে সিডনি টেস্টে তাকে বেশ উত্তক্ত করা হচ্ছিল। একটা সময় মেজাজ আর ধরে রাখতে পারেননি। ফলে মধ্যমা দেখিয়ে দেন। এই ঘটনার জেরে ম্যাচ রেফারি তার দিকে পত্রিকাও ছুড়ে মেরেছিলেন বলে জানান কোহলি।

সম্প্রতি সেই ঘটনার স্মৃতিচারণ করে কোহলি বলেন, ‘এই বিষয়টি খুব করে মনে রাখার মতো। আমি সিডনিতে অনেক বেশি অস্ট্রেলিয়ান দর্শকদের ঝাঁঝালো মন্তব্যের মধ্যে পড়েছিলাম। আমি একটা সময় দর্শকদের মধ্যমা দেখানোর সিদ্ধান্ত নিই। তারপর ম্যাচ রেফারি (রঞ্জন মাদুগালে) আমাকে তার রুমে ডেকে পাঠালেন। তিনি জিজ্ঞেস করেন, কি হয়েছিল। আমি বললাম, কিছু হয়নি।’

কোহলি বলেন, ‘তারপরের ঘটনাটি ছিল খুবই বিব্রতকর, তখন সে (ম্যাচ রেফারি) আমার দিকে খবরের কাগজ ছুড়ে মারে। সেখানে আমার মধ্যমা প্রদর্শনের ছবি বড় করা ছাপা! আমি তখন বললাম, আমি দুঃখিত। দয়া করে আমাকে নিষিদ্ধ করবেন না ‘ ওই ঘটনাটি তাকে চারিত্রিকভাবে পরিবর্তনে সাহায্য করেছে বলে মনে করেন কোহলি।