কর্মক্ষেত্রে মস্তিষ্কের কর্মক্ষমতা বাড়ায় যে সুপারফুডগুলো

আপনি যা কিছুই খাচ্ছেন তা আপনার মস্তিস্কের ক্ষমতা ও উৎপাদনশীলতার উপর প্রভাব বিস্তার করে। তাই আপনি কি খাচ্ছেন তা নিয়ে সতর্ক হওয়া প্রয়োজন। কিছু খাবার আছে খারাপ আবার কিছু খাবার আছে ভালো আবার কিছু খাবার আছে সুপারফুড। সুপারফুড মস্তিস্কের ক্ষমতা ও উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। সেই সুপারফুড গুলো সম্পর্কে জেনে নেই আসুন।

১। পানি
পানি জীবনের জন্য অপরিহার্য একটি উপাদান। আমাদের শরীরের শতকরা সত্তুর ভাগ অংশ পানি দ্বারা গঠিত। শরীরের প্রতিটি ছোট ছোট কাজ সঠিক ভাবে সম্পন্ন করার জন্য পানি প্রয়োজন। তেল ছাড়া যেমন গাড়ি চলেনা তেমনি পানি ছাড়া শরীর ঠিকভাবে কাজ করতে পারেনা। যদি শরীর থেকে বেরিয়ে যাওয়া তরলের ঘাটতি পূরণের জন্য সারাদিনে পর্যাপ্ত পানি পান না করেন তাহলে আপনার মস্তিষ্ক এতে ক্ষতিগ্রস্থ হবে। পর্যাপ্ত পানি পান না করলে প্রাত্যহিক অবসাদ ও মাথাব্যথা হয়। তাই সারাদিনে পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি পান করুন মস্তিষ্কের উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধি করতে ও পরিষ্কার মন নিয়ে সঠিকভাবে কাজ পরিচালনা করতে।

২। ফ্যাটি ফিশ
US National Library of Medicine National Institute of Health এর মতে, মস্তিষ্কের ৬০ শতাংশই চর্বি এবং এর বেশিরভাগই ওমেগা ৩ ফ্যাটি এসিড DHA। তাই ফ্যাটি ফিশ হচ্ছে চমৎকার “ব্রেইন ফুড”। মানসিক কর্মক্ষমতা ও স্মৃতিশক্তি বাড়ানোর জন্য ওমেগা ৩ ফ্যাটি এসিড অত্যাবশ্যকীয় উপাদান যা উৎপাদনশীলতারও ভিত্তি স্বরূপ।

৩। জাম জাতীয় ফল
স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধিতে চমৎকারভাবে কাজ করে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ খাবার যেমন- জাম। এটি স্পষ্টতই কর্মক্ষেত্রের স্মরণশক্তির উন্নতিতে সাহায্য করে। আলঝেইমার্স ও পারকিনসন্স রোগ ও প্রতিরোধ করতে পারে এটি। সাধারণভাবে বলা যায় যে, গাঢ় জাম জাতীয় ফল উচ্চমাত্রার অ্যান্টি অক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ যা উৎপাদনশীলতাকে উদ্দীপিত করে।

৪। বাদাম
দেহের জন্য অবশ্য প্রয়োজনীয় প্রোটিন ও হেলদি ফ্যাট থাকে বাদামে। অ্যামাইনো এসিড, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও ভিটামিন সি তেও সমৃদ্ধ বাদাম। মস্তিষ্কের কর্মক্ষমতা ও উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধিতে সাহায্য করে এই উপাদানগুলো। গবেষণায় দেখা গেছে যে, বাদামে ভিটামিন বি ১২ ও থাকে যা মস্তিষ্কের কার্যকারিতা বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। তাই নিজের কর্মক্ষমতা বৃদ্ধিতে প্রতিদিন এক মুঠো বাদাম খান।

৫। কলা
গ্লুকোজের সবচেয়ে ভালো উৎস যা দেহে শক্তি হিসেবে কাজ করে। মাত্র একটি কলা আপনার দৈনিক গ্লুকোজের চাহিদা পূরণ করতে পারে। আপনার কার্যক্ষমতা বজায় রাখার জন্য এনার্জি প্রয়োজন এবং কলা হচ্ছে “প্রাকৃতিক এনার্জি বার”। লাইভস্ট্রং.কম এর মতে, “ঘুমাতে যাওয়ার আগের সবচেয়ে ভালো খাবার হচ্ছে কয়েক টুকরা কলা”। কারণ কলাতে ট্রিপ্টোফ্যান থাকে। মস্তিষ্কের কার্যকারিতা এবং কর্ম দক্ষতার জন্য ঘুম অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

৬। ব্রোকলি
এছাড়াও ডার্ক চকোলেট, পালংশাক, ডিম, বেগুণ, টমেটো, গাজর, ব্রোকলি, দই ইত্যাদি খাবার মস্তিষ্কের কর্মক্ষমতা বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।