এবার জন্মদিনে কোন আয়োজন থাকছে না : কনকচাঁপা

চলচ্চিত্র, আধুনিক গান, নজরুল সঙ্গীত, লোকগীতি সহ প্রায় সবধরনের গানে তিনি সমান পারদর্শী। তিনি তিন দশকে বেশি সময় ধরে সংগীতাঙ্গনে সমানতালে কাজ করে যাচ্ছেন। এ পর্যন্ত তিনি চলচ্চিত্রের তিন হাজারেরও বেশি গানে কণ্ঠ দিয়েছেন। প্রকাশিত হয়েছে প্রায় ৪০টির মতো একক গানের অ্যালবাম। যিনি একাধারে কণ্ঠশিল্পী, কবি ও চিত্রশিল্পী।বলছি রুমানা মোর্শেদ কনকচাঁপার কথা। আজ নন্দিত এই শিল্পীর জন্মদিন।

জন্মদিনের দিনটি কিভাবে কাটবে তার সে সম্পর্কে কনকচাঁপা বলেন, এই দিনটি কখনও ঘটা করে পালন করি না। এতদিন যা কিছু করেছি তা ভক্তদের জন্যই। ১১ সেপ্টেম্বর এলেই ভক্তরা কার্ড পাঠিয়ে কিংবা ফোনে বা ফেসবুকে শুভেচ্ছা জানান। কেউ উপহার পাঠান, কেক নিয়ে বাসায় হাজির হন। তাদের খুশি করতেই ঘরোয়া আয়োজনে জন্মদিন পালন করা হয়। স্বামী, সন্তান আর ভক্তদের দিয়ে আনন্দ আড্ডায় কিছুটা সময় কাটাই। পাশাপাশি বিভিন্ন টিভি চ্যানেলের আমন্ত্রণে ‘তারকা আড্ডা’ বা বিশেষ কোনো আয়োজনে উপস্থিত থাকি। কিন্তু এবার কোনো আয়োজন থাকছে না। পুরো দিনটা বাসায় থাকব।

হঠাৎ এমন সিদ্ধান্ত নেওয়ার কারণ হিসাবে এ গুনী শিল্পী বলেন, সবচেয়ে কাছের মানুষ যখন কষ্টে আছেন, তখন উৎসব আমেজে জন্মদিন কী করে উদযাপন করি। তিনি তার স্বামী [মঈনুল ইসলাম খান] বেশ কিছুদিন ধরে অসুস্থ। চিকিৎসার জন্য দেশ-বিদেশের নানা প্রান্তে ছোটাছুটি করতে হচ্ছে। যে জন্য আমারও মনটা ভালো নেই। তাই ভক্তরা যখন জন্মদিন পালনের কথা বলেছেন, তখনই তাদের জানিয়ে দিয়েছি, এবার জন্মদিন পালন নিয়ে কিছু ভাবছি না। টিভি চ্যানেলগুলোকেও জানিয়ে দিয়েছি, আজ কোনো অনুষ্ঠানে অংশ নিতে পারব না।

কনকচাঁপা তার দীর্ঘ সংগীত ক্যারিয়ারে অসংখ্য পুরষ্কার পেয়েছেন। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য -জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার (৩ বার), বাচসাস চলচ্চিত্র পুরস্কার, দর্শক ফোরাম পুরস্কার ১৯৯৮ এবং ১৯৯৯, প্রযোজক সমিতি পুরস্কার ১৯৯৫, অনন্যা শীর্ষ দশ, প্রথম আলো-মেরিল পাঠক জরিপ (৪ বার)।

তিনি গানের পথ চলায় অসংখ্য শ্রোতাপ্রিয় গান উপহার দিয়েছেন। তার জনপ্রিয় কিছু গান হচ্ছে- অনেক সাধনার পরে আমি পেলাম তোমার মন, তোমাকে চাই শুধু তোমাকে চাই, ভাল আছি ভাল থেক, যে প্রেম স্বর্গ থেকে এসে জীবনে অমর হয়ে রয় (খালিদ হাসান মিলুর সাথে), আমার নাকেরই ফুল বলে রে তুমি যে আমার, তোমায় দেখলে মনে হয়, আকাশ ছুঁয়েছে মাটিকে, অনন্ত প্রেম তুমি দাও আমাকে, তুমি আমার এমনই একজন, নীলাঞ্জনা নামে ডেকনা।