রোনালদোর থেকে এগিয়ে র‌্যাশফোর্ড !

তরুণ ফোলা ফোলা মুখে আলোর ঝটকা লেগেছে র‌্যাশফোর্ডের। বিশ্বকাপের পর আন্তর্জাতিক ম্যাচে ইংল্যান্ডের হয়ে দারুণ পারফর্ম করেছেন তিনি।

ম্যানচেস্টার ইউটাইটেডের ২০ বছর বয়সী এই তারকাকে নিয়ে কথা বলতে শুরু করেছেন অনেকে। কেউ দিয়েছেন পরামর্শ। কেউ ভাসিয়েছেন প্রশংসায়। ইংল্যান্ডের সাবেক ডিফেন্ডার ক্রেইগ এবং ইংল্যান্ড দলের কোচ গ্যারেথ সাউথগেট তাদের মধ্যে অন্যতম।

র‌্যাশফোর্ড স্পেন এবং সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে দারুণ পারফর্ম করেন। দুই ম্যাচে দলের হয়ে করেন দুই গোল। বিশ্বসেরাদের একজন হতে তিনি মুখিয়ে আছেন বলে জানান দিয়েছেন। তবে ক্রেইগ তাকে পরামর্শ দিয়েছেন ম্যানইউ ছাড়ার। কারণ দারুণ সম্ভাবণাময় এই সেন্ট্রাল ফরোয়ার্ডের মরিনহোর শুরুর একাদশে ঠিকঠাক সুযোগ মিলছে না। ২৩-২৪ বছর বয়সে তিনি বিশ্বসেরাদের একজন হবেন বলে মত তার। কিন্তু তার জন্য র‌্যাশফোর্ডের নিয়মিত ক্লাবের হয়ে মাঠে নামা চায়।

তবে গ্যারেথ সাউথগেট তার শিষ্যকে ওসব কোন পরামর্শ দিচ্ছেন না। তিনি তো আর দলের তারকা খেলোয়াড়কে বিশ্বের সেরা এক ক্লাব ছাড়ার কথা প্রকাশ্যে বলতে পারেন না। তবে গত মৌসুমে রিয়াল মাদ্রিদে যাওয়ার গুঞ্জনে থাকা ইংলিশ ফরোয়ার্ডকে প্রশংসায় ভাসালেন কোচ। র‌্যাশফোর্ড সাবেক ম্যানইউ এবং রিয়াল তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর থেকেও এগিয় আছেন বলে মনে করেন বিশ্বকাপে দলকে সেমিফাইনালে তোলা ইংলিশ কোচ।

গ্যারেথ সাউথগেট বলেন, ‘র‌্যাশফোর্ড বিশেষ এক প্রতিভা। আমার মনে হয় হ্যারি কেনও তার বয়সে ইংল্যান্ডের হয়ে এতো ম্যাচ খেলার সুযোগ পায়নি। এমনকি রোনালদোও তার বয়সে এতো বেশি গোল পাননি। তাই র‌্যাশফোর্ডকে উন্নতি করার জন্য আমরা আরও সময় দিতে চাই।’

তবে ক্লাবের হয়ে নিয়মিত খেলার সুযোগ পাচ্ছেন না র‌্যাশফোর্ড। এ বিষয়ে কথা বলা উচিত নয় বলে মনে করেন সাউথগেট। তবে মরিনহো তার তরুণ তারকার অনেক প্রশংকা করেন বলেও জানান তিনি।

ইংলিশ কোচ বলেন, ‘ক্লাবের কোচের কাজে হস্তক্ষেপ করা আমার কাজ নয়। তাছাড়া তাদের কাজটা অনেক কঠিন। হাতে অনেক বড় দল থাকে। লিগের ছয় বড় ক্লাবের একটি তারা। জায়গা ধরে রাখাটা বড় প্রতিদ্বন্দ্বীতা। তাই র‌্যাশফোর্ডকে নিয়ে মরিনহোই চিন্তা করবেন। তবে কোচের মুখে র‌্যাশফোর্ডকে নিয়ে অনেক প্রশংসা শোনা যায়।’

এছাড়া ক্লাবের হয়ে অনেক প্রতিযোহিতা করেও দলে নিয়মিত সুযোগ না পাওয়ায় র‌্যাশফোর্ড কিছুটা উদ্বিগ্ন বলে জানান তার জাতীয় দলের কোচ। বিশ্বকাপে বেশি খেলার সুযোগ না পাওয়াও র‌্যাশফোর্ডের জন্য দুশ্চিন্তার ছিল এটাও অকপটে বলেন তার কোচ।