হাতুরুসিংহে বাংলাদেশের ব্যাটিং-বোলিংয়ের শক্তি ও দুর্বলতার জায়গাগুলো জানে : ধনঞ্জয়া ডি সিলভা

আর মাত্র এক দিনের অপেক্ষা। বাংলাদেশের বিপক্ষে শ্রীলঙ্কার ম্যাচ দিয়েই শনিবার পর্দা উঠছে এশিয়া কাপের ১৪তম আসরের। এশিয়ান ক্রিকেটের শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়ে উদ্বোধনী ম্যাচে বাংলাদেশ যখন লঙ্কানদের বিপক্ষে মাঠে নামবে তখন চান্দিকা হাতুরুসিংহে থাকবেন লঙ্কানদের ড্রেসিংরুমে। বাংলাদেশকে হারাতে তাকে বাড়তি ‘সুবিধা’ হিসেবে দেখছেন ধনঞ্জয়া ডি সিলভা।

হাতুরুসিংহে বাংলাদেশের দায়িত্ব নিয়েছিলেন ২০১৪ সালে। এরপর প্রায় সাড়ে তিন বছর বাংলাদেশ ক্রিকেটের সঙ্গে ছিলেন এই লঙ্কান কোচ। এ সময় বাংলাদেশ ক্রিকেটকে খুব কাছ থেকে দেখেছেন তিনি। একই সঙ্গে বাংলাদেশের শক্তি ও দুর্বলতার জায়গাগুলোও তার অজানা নয়।

ধনঞ্জয়া ডি সিলভা মনে করেন, উদ্বোধনী ম্যাচে বাংলাদেশকে হারাতে এটুকুই যথেষ্ট। এই লঙ্কান ব্যাটসম্যান আরও জানান, কোচের কাছ থেকে প্রতিপক্ষ দলের শক্তি ও দুর্বলতাগুলো জেনে ম্যাচে তা কাজে লাগাতে চায় লঙ্কানরা।

১৩ সেপ্টেম্বর, বৃহস্পতিবার দুবাইয়ে সংবাদ সম্মেলনে ধনঞ্জয়া ডি সিলভা বলেন, ‘এটি (হাতুরুসিংহে বাংলাদেশের সাবেক কোচ) আমাদের জন্য শক্তিশালী জায়গা। এটা আমাদের বাড়তি সুবিধা দেবে।’

এ সময় বাড়তি সুবিধা পাওয়ার ব্যাখ্যাও দিয়েছেন ধনঞ্জয়া, ‘সে (হাতুরুসিংহে) তাদের (বাংলাদেশ) ব্যাটিং-বোলিংয়ের শক্তি ও দুর্বলতার জায়গাগুলো জানে। এখান থেকে ইতিবাচক বিষয়গুলো তুলে নেওয়ার ভালো সুযোগ রয়েছে আমাদের। এটাকেই আমরা কাজে লাগাতে চাই।’

হাতুরুসিংহের পদত্যাগের পর শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে এখন পর্যন্ত দুটি সিরিজ খেলেছে বাংলাদেশ। দুই সিরিজে সাকিব-তামিমরা যতবার লঙ্কানদের মুখোমুখি হয়েছেন, ততবার শোনা গেছে ‘হাতুরু হাতুরু’ রব। এশিয়া কাপেও তার ব্যতিক্রম হচ্ছে না।

লঙ্কানদের মাঠে নামার আগে অনেকে মনে করেছেন, এই ম্যাচে হাতুরুসিংহেই বাংলাদেশের অদৃশ্য ‘প্রতিপক্ষ’ হয়ে উঠতে পারেন। একইসঙ্গে প্রতিশোধের প্রসঙ্গটাও মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। কিন্তু হাতুরুসিংহে ও প্রতিশোধের প্রসঙ্গ উঠতেই তামিম ইকবাল জানিয়ে দিয়েছেন, ভাবনাটা একেবারেই ভুল। সাবেক কোচের বিপক্ষে কোনো প্রতিশোধ দেখছেন না জাতীয় দলের এই ড্যাশিং ওপেনার।-প্রিয়.কম।