রূপচর্চায় অ্যাপল সাইডার ভিনিগারের অবদান

অ্যাপল সাইডার ভিনিগার স্বাস্থ্যের উপকার করার পাশাপাশি ত্বক এবং চুলেরও উপকার করে।

রূপচর্চায় অ্যাপল সাইডার ভিনিগারের কীভাবে অবদান রাখতে পারে তার কয়েকটি উদাহরণ দেওয়া হল সাজসজ্জা-বিষয়ক একটি ওয়েবসাইটের প্রতিবেদন অবলম্বনে।

​টোনার: ত্বকের পিএইচ’য়ের ভারসাম্য ধরে রাখতে এই তরল ব্যবহার করা য়ায়।

টোনার তৈরি করতে বড় এক চামচ ভিনিগারের সঙ্গে দুই চামচ পানি মেশান। ত্বকের যেকোনো সমস্যা এমনকি দাগছোপও এর মাধ্যমে দূর করা যায়। ত্বক সংবেদনশীল হলে আগে থেকেই পরীক্ষা করে নিন এবং প্রয়োজনে পানি বেশি মেশান, এতে ত্বকে জ্বালা হবে না।

চুল পরিষ্কার করতে: শ্যাম্পুতে নানান রাসায়নিক উপাদান থাকে যা চুলের উজ্জ্বলতা কেড়ে নেয়। মাথার ত্বক পরিষ্কার করতে অ্যাপল সাইডার ভিনিগার দিয়ে চুল পরিষ্কারক বানাতে পারেন।

এক কাপ পানিতে দুভাগ অ্যাপল সাইডার ভিনিগার মেশান এবং শ্যাম্পু করার পরে সেটা দিয়ে চুল ধুয়ে নিন। কয়েক মিনিট অপেক্ষা করার পরে ধুয়ে ফেলুন।

​রোদপোড়াভাব দূর করতে: এতে আছে প্রাকৃতিক অ্যাস্ট্রিনজান্ট। যদি ত্বকে কোনো ধরনের অস্বস্তি যেমন- চুলকানি বা পোড়ার কারণে জ্বালাভাব থাকে তাহলে এটা খুব ভালো সমাধান।

রোদে পোড়া ও রেইজরের কারণে হওয়া অস্বস্তি কমাতে সমপরিমাণ ভিনিগার ও ঠাণ্ডা পানি মিশিয়ে আক্রান্ত স্থানে মালিশ করুন। ভালো ফলাফল আসবে।

​পায়ের দুর্গন্ধ দূর করতে: পায়ের দুর্গন্ধ দূর করতে বাড়তি সুগন্ধির প্রয়োজন নেই, এটা বাড়িতেই বানাতে পারেন।

অ্যাপল সাইডার ভিনিগার মেশানো পানিতে ১০ থেকে ১৫ মিনিট পা ডুবিয়ে রাখুন। এর অ্যাসিড উপাদান পায়ের দুর্গন্ধ দূর করতে সাহায্য করে।

​ব্রাশ পরিষ্কার করতে: মেইকআপ ব্রাশে থাকতে পারে ব্যাকটেরিয়া, যে কারণে ত্বকের ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

এক কাপ গরম পানিতে এক টেবিল-চামচ ভিনিগার মিশিয়ে তা দিয়ে ব্রাশ পরিষ্কার করুন। এটা ব্রাশের ব্যাকটেরিয়া দূর করবে।

সূত্র: বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর