আজ আফগানিস্তানের বিপক্ষে হারলেই বিদায় নিতে হবে শ্রীলঙ্কাকে!

আফগানিস্তান ও শ্রীলঙ্কার ম্যাচে আজ চোখ থাকবে ভারতেরও! সেটা আবার কেন? এশিয়া কাপে ভারত তো খেলছে অন্য গ্রুপে। সুপার ফোরে যাওয়ার ক্ষেত্রে ভারতের জন্য শ্রীলঙ্কা কোনো বাঁধা নয়। তাহলে দুবাইয়ে কেন চোখ থাকবে ভারতের? ১৪তম এশিয়া কাপে শ্রীলঙ্কা-আফগানিস্তান লড়াই আজ। বাংলাদেশের কাছে হেরে এশিয়া কাপের যাত্রা শুরু করেছে শ্রীলঙ্কা। সুপার ফোরের আশা টিকিয়ে রাখতে হলে আজ জিততেই হবে শ্রীলঙ্কাকে। আর যদি আফগানিস্তান জিতে যায় তাহলে খালি হাতে এশিয়া কাপ থেকে বিদায় নিতে হবে চন্ডিকা হাথুরুসিংহের শিষ্যদের।

শ্রীলঙ্কা বিদায় নিলে ভারতের একদিক থেকে লাভ। এশিয়া কাপ এখন পর্যন্ত পাঁচবার করে ভাগাভাগি করেছে ভারত ও শ্রীলঙ্কা। শ্রীলঙ্কা বাদ পড়লে ভারতের সম্ভাবনা থাকবে এগিয়ে যাওয়ার। সেক্ষেত্রে নিশ্চিন্ত হয়ে মঙ্গলবার থেকে এশিয়া কাপের মিশন শুরু করতে পারবে ২০১১ বিশ্বকাপের চ্যাম্পিয়নরা।

শক্তির বিচারে শ্রীলঙ্কাকে এগিয়ে রাখবেন ক্রিকেটবোদ্ধারা। কিন্তু আফগানিস্তান এখন ক্রিকেট বিশ্বের অন্যতম পরাশক্তি। বলে কয়ে যেকোনো দলকে হারাতে পারে তারা। সেজন্য আফগানিস্তানও এখন বড় হুমকি শ্রীলঙ্কার জন্য।

শ্রীলঙ্কার জয়ের সম্ভাবনা অনেকটাই নির্ভর করছে সিনিয়র খেলোয়াড়দের ওপর। ম্যাথুস, থারাঙ্গা, মালিঙ্গারা ভালো করলে সহজেই জয় পাবে সিংহের দল। দীর্ঘ দেড় বছর পর ওয়ানডে দলে ফিরে লাসিথ মালিঙ্গা বাংলাদেশের বিপক্ষে দারুণ পারফরম্যান্স করেন। ২৩ রানে নিয়েছেন ৪ উইকেট। ব্যাটিংয়ে থারাঙ্গা ঝোড়ো শুরু করলেও ইনিংস বড় করতে পারেননি। আর অধিনায়ক ম্যাথুস ছিলেন ফ্লপ। ব্যাটিংয়ে ভালো করতে পারেননি, ফিল্ডিংয়েও ছিলেন বাজে। আজ তাদের দিকে তাকিয়ে থাকবে লঙ্কানরা।

এক আসর বিরতি দিয়ে এশিয়া কাপে ফিরছে আফগানিস্তান। এমনিতেই জয়ের ক্ষুধায় সব সময় মগ্ন থাকে আফগানিস্তান। আজ যে তাড়নাটা আরও বেশি থাকবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। দলের সবথেকে বড় তারকা রশিদ খান তো বলেছেন তাদের চোখ শিরোপায়। আর শিরোপা জিততে হলে তো আজকের ম্যাচে জয় চাই-ই চাই।

মোহাম্মদ নবী, রশিদ খান ও মুজিব উর রহমানদের মতো প্রতিভাবান খেলোয়াড় রয়েছে দলটিতে। নবী তো দীর্ঘদিন ধরেই খেলছেন। দেশটি এ পর্যন্ত যে ১০১টি আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছে তার সবগুলোতেই ছিলেন নবী। তাকে নিয়ে বিশেষ কোনো আলোচনার প্রয়োজন নেই। রশিদ খান এখন সবথেকে ভয়ংকর লেগ স্পিনার। তার সঙ্গে যোগ দিয়েছেন মুজিব উর রহমান। তিনজনের জুটি যেকোনো দলকে হারাতে যথেস্ট।

টি-টোয়েন্টিতে আফগানিস্তান বলে কয়ে যেকোনো দলকে হারাতে পারে। কিন্তু ওয়ানডেতে এখনও সেভাবে মেলে ধরতে পারেনি। তবে ধারাবাহিক ক্রিকেট খেলছে তারা। কিছুদিন আগেও আয়ারল্যান্ড থেকে ওয়ানডে সিরিজ জিতেছে তারা। এর আগে বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের ফাইনালে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে হয়েছে চ্যাম্পিয়ন। তাই লঙ্কানদের চমকে দেওয়ার সামর্থ্য আছে আফগানিস্তানের।

আজ টিকে থাকার লড়াই বলে নিজেদের সেরাটা খেলতে হবে ম্যাথুসের দলকে। আর যদি হেরে যায় তাহলে ব্যর্থতার বৃত্তে থাকা লঙ্কান ক্রিকেটে বড় ধাক্কা হবে সেটা। দুই দলের ম্যাচ শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বিকেলে ৫টা ৩০ মিনিটে।-রাইজিংবিডি