রাতে দাঁত ব্রাশ না করলে যা হতে পারে

রাতেও আপনাকে মনে করে দাঁত মাজতে হবে। নইলে আপনাকে অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে। কী কী? আসুন জেনে নিই ।

১। দাঁতে ব্যাকটেরিয়া জমা হতে থাকে

আমরা যখন রাতে খাই তারপর আমাদের দাঁতের ফাঁকে খাবারের কণা জমে যায়। আমাদের উচিৎ সেই খাবারের কণাগুলো দাঁত থেকে সরিয়ে দেওয়া। নইলে সেই জমা খাবারে ব্যাকটেরিয়া জমা হতে থাকে। এর ফলে যে জীবাণু তৈরি হয় তার থেকে অ্যাসিড উৎপন্ন হয় যা দাঁতের এনামেল নষ্ট করে দেয়। এর পরিণতিতে হতে পারে দাঁতের ক্ষয়।

২। দাঁত হলুদ হয়ে যায়

শুধু তাই নয়, এই অ্যাসিড দাঁতের ওপর একটা স্তর ফেলে দেয়। যে স্তর দিনের পর দিন পরতে থাকলে হলুদ রঙ হয়ে যায় যে রঙ কোনোভাবেই আর ব্রাশ করে তোলা যায় না। আমাদের তখন কোন ডাক্তারের কাছে গিয়ে পরিষ্কার করাতে হয় অনেক টাকা দিয়ে।

৩। মাড়ি সরে আসে ও দাঁত আলগা হয়ে যায়

আবার এই দাঁতের অ্যাসিডিক হয়ে যাওয়ার জন্য নানারকম ইনফেকশন হতে পারে। দাঁতের স্বাস্থ্যকর যে টিস্যু থাকে তা নষ্ট হয়। মাড়ি সরে আসে ও দাঁত আলগা হয়ে যায়। দাঁত থেকে পড়ে রক্ত। মাড়ি ফুলে গেলে আপনাকে দেখতেও তো ভালো লাগবে না। সবচেয়ে বড় কথা আপনার কী ভালো লাগবে যদি সকালে উঠে আপনার মুখটা আপনার নিজেরই ‘ফ্রেস’ না মনে হয়।

৪। দাঁত থেকে অন্যান্য রোগ হতে পারে

কিন্তু, শুধু দাঁতের সমস্যাতেই বিষয়টা আটকে থাকবে না। আপনার হতে পারে হার্টের রোগ, স্ট্রোক, ডায়াবেটিস, অ্যাজমা, ফুসফুসের রোগ, কিডনির সমস্যা হতে পারে। এমনকি ক্যানসার হতে পারে। রাতে খাবারের পর জমে যাওয়া খাবারে যে ব্যাকটেরিয়া হয় তা রক্ত প্রবাহের সঙ্গে জীবাণুর সংক্রমণ ঘটিয়ে হার্টের সমস্যা আনতে পারে। যে অ্যাসিড তৈরি হয় সেই অ্যাসিড রক্তে গ্লুকোজের মাত্রার তারতম্য ঘটায়। ফলে ডায়াবেটিস হতে পারে। আর দিনের পর দিন ধরে মুখে জীবাণু জমতে জমতে মুখে ক্যান্সার হতে পারে।

তাই এসব সমস্য থেকে বাঁচতে আসুন প্রতিদিন নিয়মিত রাতে ব্রাশ করার অভ্যাস গড়ে তুলি।