১৯ বছরের পুরনো রেকর্ড ভাঙলেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ এবং ইমরুল কায়েস

ছবি: এ সি সি

আরেকবার জন্য জীবন ফিরে পেলো বাংলাদেশ দল। আফগানিস্তানের বিপক্ষে টানা ম্যাচ হারের পর অবশেষে জয়ের মুখ দেখেছে বাংলাদেশ। গতকাল মোস্তাফিজুর রহমানের বোলিং ভেলকিতে ৩ রানে জয় লাভ করে বাংলাদেশ দল। তবে ম্যাচের নায়ক শুধু মুস্তাফিজ নন আছেন আরো দুই জন তারা হলেন ইমরুল কায়েস এবং মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। এই দুইজন ১৯ বছরের পুরনো রেকর্ড ভেঙে বাংলাদেশকে জয় উপহার দিয়েছেন।

আবুধাবিতে এশিয়া কাপের সুপার ফোরের ম্যাচে বাংলাদেশ যে আজ আফগানিস্তানকে ২৫০ রানের লক্ষ্য বেঁধে দিতে পারল, এর পুরো কৃতিত্ব মাহমুদউল্লাহ ও ইমরুলের। গ্রুপ পর্বে আফগানিস্তানের বিপক্ষে পরে ব্যাট করে বাংলাদেশ গুটিয়ে গিয়েছিল ১১৯ রানে। আজ আগে ব্যাট করতে নেমেও দুইশর আগে অলআউট হওয়ার শঙ্কা জেঁকে বসেছিল। সেটি হতে দেয়নি মাহমুদউল্লাহ ও ইমরুলের ১২৮ রানের ষষ্ঠ উইকেট জুটি।

ওয়ানডেতে ষষ্ঠ উইকেটে জুটিতে এটি বাংলাদেশের নতুন রেকর্ড। মাহমুদউল্লাহ-ইমরুল জুটি ভেঙে দিয়েছে ১৯ বছরের পুরনো রেকর্ড। ১৯৯৯ সালে ঢাকায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ষষ্ঠ উইকেটে অবিচ্ছিন্ন ১২৩ রানের জুটি গড়েছিলেন আল শাহরিয়ার ও খালেদ মাসুদ। সেটি ছাড়িয়ে গেলেন মাহমুদউল্লাহ ও ইমরুল।

রেকর্ড জুটি ভেঙেছে মাহমুদউল্লাহর বিদায়ে। ৮১ বলে ৩ চার ও ২ ছক্কায় ৭৪ রানের অসাধারণ এক ইনিংস খেলেছেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান। বাঁহাতি ব্যাটসম্যান ইমরুল ৮৯ বলে ৬ চারে ৭২ রানে অপরাজিত ছিলেন।

ওপেনিংয়ে লিটন দাস ও নাজমুল হোসেন শান্ত রান না পাওয়ায় গতকাল রাতে হঠাৎ করেই সৌম্য সরকার ও ইমরুলকে উড়িয়ে নেওয়া হয় আরব আমিরাতে। আজ একাদশে সুযোগ পেয়ে কী দারুণভাবেই না সেটি কাজে লাগালেন ইমরুল। ভ্রমণ ক্লান্তি ছাপিয়ে খেললেন কার্যকরি এক ইনিংস।

ইমরুল তার আগের ৭১ ইনিংসের ৬১টিতে নেমেছিলেন ওপেনিংয়ে, বাকিগুলোতে তিনে। কিন্তু আজ তাকে নামিয়ে দেওয়া হয়েছিল ছয় নম্বরে। এই পজিশনে প্রথমবার নেমেই ফিফটি করলেন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। সফল হলেও তাকে ছয় নম্বরে নামিয়ে দেওয়াটা জন্ম দিয়েছে অনেক প্রশ্নেরও!