পাকিস্তানের সাথে বাংলাদেশের ম্যাচ যদি ড্র বা পরিত্যক্ত হয় তাহলে যে দল ফাইনালে যাবে!

কাগজে-কলমে এবারের এশিয়া কাপে কোনো সেমিফাইনাল নেই। সুপার ফোরের সেরা দুই দল খেলবে শিরোপা জয়ের অন্তিম লড়াই, অর্থাৎ ফাইনালে।

কিন্তু সুপার ফোরের সেই লড়াইটা এমন পর্যায়ে এসে দাঁড়িয়েছে, বাংলাদেশ বনাম পাকিস্তান ম্যাচটি হয়ে দাঁড়িয়েছে অঘোষিত সেমিফাইনাল।

সুপার ফোর পর্বের প্রথম দুই ম্যাচেই জয় দিয়ে ফাইনাল অনেকটাই নিশ্চিত করে ফেলেছে ভারত। বাংলাদেশের পর গতকাল রোববার তারা হারিয়েছে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানকে।

অন্যদিকে পাকিস্তান ও বাংলাদেশ দুই দলের কাছেই হেরে বিদায় নিশ্চিত হয়ে গেছে আফগানিস্তানের। তাদের শেষ ম্যাচটি শিরোপার অন্যতম ফেভারিট ভারতের বিপক্ষে। এই ম্যাচে জিতলেও কোনো লাভ হবে না আফগানিস্তানের।

ফলে সমীকরণটা এমন দাঁড়িয়েছে যে বাংলাদেশ-পাকিস্তানের মুখোমুখি লড়াইয়ে জয়ী দলই পাবে ফাইনালের টিকেট। কিন্তু বাংলাদেশ বনাম পাকিস্তানের ম্যাচ যদি টাই হয় কিংবা পরিত্যক্ত হয় তাহলে কি হবে?

এই এশিয়া কাপে শুধু মাত্র ফাইনাল ম্যাচে সুপার ওভারের নিয়ম রয়েছে। আর কোন রিজার্ভ ডেও নেই। তাই টাই বা পরিত্যাক্ত হলে রান রেটের হিসেবে যে দল এগিয়ে থাকবে সেই যাবে ফাইনালে। সেক্ষেত্রে পাকিস্তান যাবে ফাইনালে। কারণ পাকিস্তানের নেট রান রেট -০.৫৫৬ এবং অন্য দিকে বাংলাদেশের নেট রান রেট -০.৬৪৫।

এশিয়া কাপে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের পথচলাটা ছিল বেশ উত্থান-পতনের। প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে শুরুটা দারুণভাবে করলেও নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে মাশরাফিরা হেরে যায় আফগানিস্তানের বিপক্ষে। তবে তার আগেই সুপার ফোর নিশ্চিত হয়ে যাওয়ায় সেই ম্যাচ নিয়ে কেউ মাথা ঘামায়নি।

তবে সুপার ফোরের ম্যাচে আফগানিস্তানকে হারাতে ভালোই ঘাম ঝরাতে হয়েছে বাংলাদেশকে। প্রায় পুরো ম্যাচেই ছিল টানটান উত্তেজনা। ২৫০ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে জয়ের প্রায় দোরগোড়ায় পৌঁছে গিয়েছিল আফগানিস্তান।

তবে শেষ ওভারে দুর্দান্ত বোলিং করে বাংলাদেশকে জয়ের বন্দরে ভিড়িয়েছেন মুস্তাফিজুর রহমান। ৩ রানের জয় দিয়ে টাইগাররা টিকিয়ে রেখেছে ফাইনালে খেলার স্বপ্ন। এখন সেই স্বপ্ন সত্যি হবে কি না, তা জানার জন্য অপেক্ষা করতে হবে পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচটি শেষ হওয়া পর্যন্ত।