আগামীকাল ফাইনালে যে একাদশ নিয়ে মাঠে নামছে টাইগাররা

আগামীকাল (শুক্রবার) এশিয়া কাপের ফাইনাল ম্যাচ। এদিনই নিশ্চিত হবে এবার এশিয়ার শ্রেষ্ঠত্ব কারা অর্জন করবে। শিরোপার লড়াইয়ে এদিন মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ও ভারত। ‍দুবাই ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বিকাল সাড়ে পাঁচটায়।

শেষবার ২০১৬ সালের এশিয়া কাপের ফাইনালে বাংলাদেশকে ৮ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়ে শিরোপা জিতেছিল ভারত। আর এরই সাথে পুরো টুর্নামেন্টে দারুণ খেলে আসার পরেও শিরোপা জয়ের স্বপ্ন ভঙ্গ হয়েছিল টাইগারদের।

দুই বছর পর আবারও আরেকটি ফাইনাল খেলতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। আর এবারও তাদের প্রতিপক্ষ সেই ভারত। যদিও এবারের টুর্নামেন্টের ফরম্যাটটি ভিন্ন তবে ভিন্নতা নেই ভারতীয় দলের শক্তিমত্তাতে। এবারের এশিয়া কাপে এখন পর্যন্ত একটি ম্যাচেও পরাজিত হয়নি রোহিত শর্মার নেতৃত্বাধীন ভারত।

সুপার ফোরের একটি ম্যাচে শুধু আফগানিস্তানের বিপক্ষে টাই হয়েছিল তাদের। বাদবাকি সবকয়টি ম্যাচেই সমান দাপট দেখিয়ে গিয়েছে দলটি। তাই আগামীকাল দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিতব্য ফাইনালে যে স্পষ্টভাবে ফেভারিট ভারতই থাকছে তা বলাই বাহুল্য। তার ওপর বাংলাদেশকে মাত্র কয়েকদিন আগেই সুপার ফোরের ম্যাচে ৭ উইকেটে হারিয়েছিল তারা।

তবে ভারত এগিয়ে থাকলেও আত্মবিশ্বাসে খুব বেশি কমতি থাকছে না বাংলাদেশের। কেননা আফগানিস্তান এবং পাকিস্তানকে টানা দুই ম্যাচে হারিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করেছে তারা। গতকাল সরফরাজ আহমেদের পাকিস্তানকে ৩৭ রানে হারিয়েছে মাশরাফি বাহিনী।

কিন্তু এরপরেও একটি দুশ্চিন্তা ঠিকই গ্রাস করছে বাংলাদেশ দলকে। আর সেটি হল দলের টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতা। এখন পর্যন্ত কোন ম্যাচেই নিজেদের সামর্থ্যের প্রমাণ দিতে পারেননি ওপেনাররা। তামিম ইকবালের যোগ্য উত্তরসূরি হিসেবেও কাউকে পায়নি দলটি।

এদিকে, বুধবার পাকিস্তানের বিপক্ষে জিতেছে বাংলাদেশ। এই কারণে শেষ মুহূর্তে কেউ ইনজুরিতে না পড়লে ফাইনাল ম্যাচে একাদশে হয়তো পরিবর্তন আনকে না বাংলাদেশ। অন্যদিকে, সুপার ফোর পর্বে ভারত তাদের শেষ ম্যাচে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ড্র করে। এই ম্যাচে তারা দলের সেরা কয়েকজন পারফর্মারকে বসিয়ে রেখেছিল। কিন্তু বাংলাদেশের বিপক্ষে তারা পূর্ণ শক্তি নিয়েই ফিরবে।

বাংলাদেশ একাদশ (সম্ভাব্য): লিটন দাস, সৌম্য সরকার, মুমিনুল হক, মোহাম্মদ মিথুন, মুশফিকুর রহিম (উইকেটরক্ষ), ইমরুল কায়েস, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মেহেদী হাসান মিরাজ, মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক), রুবেল হোসেন, মোস্তাফিজুর রহমান।