‘আমাকে নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ানোর চেষ্টা করা হয়েছে’ : বুবলি

কয়েকটি ছবিতে অভিনয়ের কথা থাকলেও পরবর্তীতে ‘না’ করেন চিত্রনায়িকা শবনম বুবলী। সেই ‘না’ আবার ‘হ্যাঁ’ও হয়ে যায়। তার এই সিদ্ধান্ত পরিবর্তন নতুন করে আলোচনা তৈরি করেছে ঢাকাই সিনেমায়। এ প্রসঙ্গে নিয়ে তিনি কথা বললেন প্রতিনিধির সাথে। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন মোস্তাফিজ মিঠু

‘মাননীয় সরকার একটি প্রেম দরকার’ ছবিটি প্রথমে করবেন না বলে জানালেও ছবিটির শুটিংয়ে আপনাকে দেখা গেল। এই ফিরে আসার কারণ কী?

‘মাননীয় সরকার একটি প্রেম দরকার’ ছবিটির কথা চলাকালীন অন্য আরেকটি ছবি নিয়ে কথা হচ্ছিল। সেটির জন্য যেহেতু শিডিউল দেওয়া ছিল তাই এই ছবিটি করবো না বলেছিলাম। এখন এই ছবিটির নাম পরিবর্তনের কথা বলা হচ্ছে। কিন্তু আসলে যে ছবিটির গল্প নিয়ে শুরুতে কথা হয়েছিল এবং আমার শিডিউল দেওয়া ছিল সেই ছবিটি এটি।

যেহেতু নাম ও গল্প পরিবর্তনের কথা বলছেন এবং এই ছবির গল্প নিয়েই আপনার সাথে কথা হয়েছে সেহেতু ‘মাননীয় সরকার একটি প্রেম দরকার’ ছবিটি তো হচ্ছে না?

অনেকটা তেমনই। তবে একই টিম নিয়ে নতুন গল্প ও নাম নিয়ে ‘কালপ্রিট’ ছবিটি শুরু হয়েছে। মূলত সেই সময় ২-৩টি গল্প নিয়ে কথা হচ্ছিল। যেহেতু একই প্রযোজক, পরিচালক ও শিল্পী তাই অন্য গল্প নিয়ে ছবিটি হচ্ছে।

‘শাহেনশাহ’ ছবিটিও আপনার করার কথা থাকলেও সেই ছবিটি আপনি করছেন না বলে জানা যায়—

‘শাহেনশাহ’ নিয়ে আমার সাথে কখনো কথা হয়নি। আমাকে নিয়ে বেশকিছু ভুল বোঝাবুঝি হয়েছিল। সেটির কারণ কী আমি জানি না। এটা অনেকের ভুল ধারণা। আমাকে নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ানোর চেষ্টা করা হয়েছে। প্রমোশনের জন্যও হতে পারে।

‘বসগিরি টু’ ছবিতে আবারো ফিরেছেন। এই ছবিটিও না করা কথা বলেছিলেন। এ প্রসঙ্গে জানতে চাই—

এই ছবিটির শিডিউল নিয়ে যখন কথা হচ্ছিল তখন আমার ব্যক্তিগত ব্যস্ততার কারণে ছবিটি করবো না বলে সিদ্ধান্ত নিই। কিন্তু বসগিরি ছবির মধ্য দিয়ে দর্শকদের যেমনটা সাড়া পেয়েছি, সেই জায়গা থেকে এই ছবিটিও আমার করা উচিত মনে করেছি। ‘বসগিরি টু’তে অন্য এক বুবলিকে দেখবেন দর্শকরা।

তথ্যসূত্র: ইত্তেফাক