কখনো বলিউডে আসতে চাইনি : কাজল

‘দিলওয়ালে দুলহানিয়া লে জায়েঙ্গে’ থেকে শুরু করে ‘কুছ কুছ হোতা হ্যায়’৷ একের পর এক ব্লকবাস্টার দিয়ে বলিউড ক্যুইন হয়ে উঠেছিলেন তিনি৷ ‘অঞ্জলি’ যেন তাঁর ডাকনাম হয়েই রয়ে গিয়েছে সকলের মনে৷ কখনও স্বপ্নের দুনিয়ার ‘সিমরন’ তো কখনও তিনি টম বয় ‘অঞ্জলি’৷

এইভাবে বছর বছর দর্শকদের এন্টারটেইন করে গিয়েছেন কাজল৷ সেই কাজলই কিনা আজ বলছেন, বলিউডের মতো অনিশ্চিত জায়গা আর নেই৷ কখনই তিনি অভিনেত্রী হতে চাননি!

সম্প্রতি তাঁর আসন্ন ছবি ‘হেলিকপ্টার ইলা’র প্রচারে এসে তিনি জানান, “আমি কখনই নায়িকা হওয়ার স্বপ্ন দেখতাম না৷ আমার মনে হয় না বলিউড সঠিক ভাবে সকলকে পারিশ্রমিক দেয়৷ যেভাবে আমরা পরিশ্রম করি তার প্রতিদানে তেমন কিছুই পাই না৷ আমি নিশ্চিত যে আমার মা-কেও অদম্য পরিশ্রম করতে হয়েছে এই জায়গায় পৌঁছাতে গিয়ে৷ যে সময় তিনি সেরা অভিনেত্রীদের মধ্যে একজন ছিলেন তার জন্য তাঁকে যথেষ্ট কাঠখড় পোড়াতে হয়েছে৷ অভিনয় পুরোপুরি একটা অনিশ্চিত পেশা৷”

‘হেলিকপ্টার ইলা’র চিত্রনাট্য অনুযায়ী, ছবিতে কাজল একজন জনপ্রিয় গায়িকা হওয়ার স্বপ্ন দেখেন৷ তিনি অভিনয় করেছেন ‘ইলা’র চরিত্রে৷ বহু স্ট্রাগলের পরও কিছুতেই নিজের লক্ষ্যে পৌঁছতে পারে না ইলা৷

অন্যদিকে একজন সিঙ্গেল মাদারও সে৷ ছেলে ভিভানের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন ঋদ্ধি সেন৷ ছেলের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক এবং নিজের জীবনের জটিলতা নিয়ে একেবারে জর্জরিত৷ সব মিলিয়েই মা-ছেলের সম্পর্ক ছাড়াও ছবিতে বিভিন্ন এলিমেন্টস রয়েছে৷

ইলার ওভারপ্রোটেক্টিভনেস কি নষ্ট করে দেবে তাঁর এবং ছেলের সম্পর্ক? ছেলেকে আষ্টেপৃষ্টে বাঁধতে গিয়ে ভিভান বাড়ি ছেলে চলে যায়৷ কীভাবে আবার আগের মতো হয়ে উঠবে মা-ছেলের সম্পর্ক, ট্রেলার দেখে সেই প্রশ্ন জেগে উঠেছিল দর্শকদের মনে৷

ছবিতে নেহা ধুপিয়াকেও দেখা যাবে একটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে৷ ছবিটির বিষয় ঘোষণা করার সময় জানানো হয়েছিল এটি একটি গুজরাতি নাটক হিন্দি রিমেক৷ নাটকটির নাম ‘বেটা কাগড়ো’৷ এখন দেখার বিষয় হেলিকপ্টার ইলা-তে ভর করে বক্স-অফিসে কতটা ঝড় তুলতে পারেন কাজল!

তথ্যসূত্র: বিডি প্রতিদিন