জন্মদিনে মাশরাফীকে নিয়ে ফেসবুকে যা লিখল তার স্ত্রী

আজ বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার জন্মদিন। ২০১৪ সালের এই ৫ অক্টোবরেই তার ঘর আলো করে আসে ছেলে সাহেল মর্তুজা।

ফলে বাবা মাশরাফি ৩৫ থেকে ৩৬ আর ছেলে সাহেল ৪ থেকে ৫- এ পা দিলেন। যেটি মাশরাফির স্ত্রী সুমনা হক সুমির শুভেচ্ছায় ফুটে উঠেছে, সিনিয়র ৩৫+জুনিয়র ৪ = মি ৩৯।

মাশরাফিকে ডাকা হয় নড়াইল এক্সপ্রেস। ডান হাতি এই পেসারের ক্রিকেট জীবন ঘিরে রয়েছে নানা সংগ্রাম। হাঁটুতে একের পর এক অস্ত্রোপচারের পরও তার খেলা চালিয়ে যাওয়া নিয়ে ক্রিকেটবোদ্ধারাই অবাক।

অবশ্য জীবন দর্শনে সব সময় অনবদ্য মাশরাফির যুক্তি, বাংলাদেশের স্বাধীনতার জন্য মুক্তিযোদ্ধারা জীবন দিয়েছেন। গুলি শরীরে বহন করেও পাক হানাদারদের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে গেছেন। তাদের তুলনায় এই যন্ত্রণা খুবই নগন্য।

মাশরাফি ১৯৮৩ সালের ৫ অক্টোবর নড়াইল শহরের মহিষখোলায় জন্মগ্রহণ করেন। বাবা গোলাম মর্তুজা স্বপন, মা হামিদা বেগম বলাকা। দুই ভাইয়ের মধ্যে মাশরাফি বড়। ছোট ভাই সিজার মাহমুদও ক্রিকেট নিয়েই সময় কাটান।

মাশরাফি ২০০৬ সালের ৭ সেপ্টেম্বর নড়াইল শহরের আলাদাতপুরের মৃত সিরাজুল হকের মেয়ে সুমনা হক সুমির সঙ্গে বিয়েবন্ধনে আবদ্ধ হন। শাশুড়ি হোসনে আরা সিরাজ স্কুলশিক্ষিকা।

মাশরাফি অবশ্য আনুষ্ঠানিকভাবে তার জন্মদিন পালন করেন না। তার অনীহার কারণেই পরিবারেও থাকে না বিশেষ কোনো আয়োজন।