প্রাণে বাঁচলেন ম্যাথু হেইডেন

সমুদ্রে সার্ফিং করতে গিয়ে ঢেউয়ের ধাক্কায় মারাত্মক চোট পেয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক ওপেনার ম্যাথু হেইডেন। কোনও রকমে প্রাণে বেঁচে ফিরেছেন এ অজি কিংবদন্তী।

ছুটিতে কুইন্সল্যান্ডের নর্থ স্ট্র্যাডব্রোক দ্বীপে ছেলে জোশের সঙ্গে সার্ফিং করছিলেন হেইডেন। তখনই ঢেউয়ের দাপটে বালিতে আছড়ে পড়েন তিনি। হেইডেন বলেন, ‘আরও বড় চোট হতেই পারত।’

মাথায়, ঘাড়ে চোট লেগেছে ১০৩ টেস্টে অস্ট্রেলিয়াকে প্রতিনিধিত্ব করা এ বাঁহাতির। মেরুদণ্ডে চিড় ধরেছে এবং লিগামেন্ট ছিঁড়ে গেছে। কপালেও জখম হয়েছে। ইনস্টাগ্রামে নিজের একটা ছবিও পোস্ট করেছেন হেডেন। যাতে রীতিমতো বিধ্বস্ত দেখাচ্ছে তাঁকে। হেডেন লিখেছেন, তিনি কোনোক্রমে একটা বুলেটকে এড়াতে পেরেছেন!

অস্ট্রেলিয়ার এক সংবাদপত্রে হেইডেন বলেছেন, ‘ঘণ্টাখানেক সার্ফিং করার পর এটা ঘটেছিল। আমরা অর্ধেক ডজন ঢেউ ভালই সামলেছিলাম। কিন্তু, এটা ডান দিক থেকে এসেছিল। আমি ডাক করে তলায় চলে গিয়েছিলাম। তারপর ঠিক কী হয়েছে, তা মনে নেই। মাথায় কাটা অবস্থায় আছড়ে পড়েছিলাম সৈকতে। নিজের ওজন ও ঢেউয়ের চাপে মাথা মচকেও গিয়েছিল। ঘাড়ের কাছে ভাঙার যেন শব্দও শুনতে পেলাম।’

সঙ্গে সঙ্গে এমআরআই ও স্ক্যান হয় তাঁর। রিপোর্টে দেখা যায় চোট ভয়াবহ। ভেঙেছে অনেক জায়গায়। তবে এই চোটের পরেও সার্ফিং ছাড়ছেন না হেডেন। তাঁর কথায়, ‘সমুদ্র যেমন দেয়, তেমন নেয়ও। আমি তাই ঠিক ফিরে আসব।’—সময় নিউজ