জোর করে এশিয়া কাপে নেয়া হয়নি সাকিবকে : পাপন

সাকিব আল হাসান বিসিবির চাপে আঙুলের চিকিৎসা না করিয়ে এশিয়া কাপ খেলতে গিয়েছিলেন কিনা সেটি নিয়ে গুঞ্জন রয়েছে। তবে মঙ্গলবার বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন এ বিষয়ে স্পষ্ট করেন বোর্ডের অবস্থান। তিনি জানান, কারো চাপে কিংবা অনুরোধে সাকিব এশিয়া কাপ খেলতে নামেননি। সে নিজের ইচ্ছে এবং গরজেই খেলেছেন।

মঙ্গলবার রাজধানীর গুলশানে নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের সাথে আলাপে বিসিবি সভাপতি বলেন, ‘সাকিবকে ফোর্স করা হয়নি। সে নিজে থেকেই খেলেছে। ডাক্তার, ফিজিও- সবার পরামর্শ নিয়েই খেলছে।’

সাকিব আল হাসানের আঙুলের ইনফেকশন নিয়েও কথা বলেছেন বিসিবি সভাপতি। সাকিবের আঙুলের এমন করুণ অবস্থার জন্য দায়ী কে বা কারা? আগে বিসিবির চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী জানিয়েছিলেন, আসলে কেউ দায়ী নয়। ব্যাকটেরিয়ার কারণে সাকিবের আঙুলে এই ইনফেকশন।

আজ সাংবাদিকদের সাথে সাকিবের ইনফেকশন নিয়ে কথা বলতে গিয়ে নাজমুল হাসান পাপনও প্রায় একই সুরে কথা বলেছেন। তার ব্যাখ্যা, ‘এশিয়া কাপ খেলতে গিয়েই এমন হয়েছে- এরকম কিছু না।’

সাকিবের আঙুলের চোটটা পুরোনো। এবছর শুরুর দিকে ত্রিদেশিয় সিরিজে আঙুলে চোট পান সাকিব। পরে শ্রীলঙ্কায় নিদাহাস ট্রফির শেষ দিকে ফিরেন। দেরাদুনে আফগানিস্তানের বিপক্ষে সিরিজেও খেলেছেন ভালোভাবে। তবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে চোটটা মাথাচাড়া দেয়। যেকারণে ব্যথানাশক ইনজেকশন দিয়ে খেলতে হয়েছে সাকিবকে।

এরপর এশিয়া কাপেও ব্যথানাশক ইনজেকশন ব্যবহার করে খেলতে চেয়েছিলেন সাকিব। ৪টি ম্যাচও খেলেন। কিন্তু পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচের দিন দেশে ফিরে আসতে হয়। আঙুলে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ায় ভর্তি হতে হয় হাসপাতালেও। বর্তমানে চিকিৎসার জন্য অস্ট্রেলিয়ায় রয়েছেন বাংলাদেশ দলের টেস্ট ও টি-টুয়েন্টি অধিনায়ক।