‘নতুন কৌশলের জন্য দলে সাইফউদ্দিন’

সাকিব আল হাসান দলে নেই। তার জায়গায় দলে নতুন ডাকা হয়েছে ফজলে রাব্বিকে। কিন্তু তিনি মূলত ব্যাটিং অলরাউন্ডার। খুব দরকার পড়লে হাত ঘুরান দলের হয়ে। তাহলে সাকিব যে ১০ ওভার বল করতেন তা পূরণ করবেন কে। এই চিন্তা থেকে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের দলে ডাকা হয়েছে গত জানুয়ারিতে ঘরের মাঠে সর্বশেষ ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলা সাইফউদ্দিনকে।

এছাড়া বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের নির্বাচক হাবিবুল বাশার জানান, সাতে এতোদিন সুযোগ দেওয়া হয়েছে ব্যাটিং অলরাউন্ডারকে। এবার সেখানে দল একজন বোলিং অলরাউন্ডারের কথা ভাবছে। আর এ কারণে পেস অলরাউন্ডার সাইফউদ্দিনের দিকে চোখ পড়েছে নির্বাচকদের।

বাংলাদেশ দলে দীর্ঘদিন ধরে সাতে ব্যাটিং করে আসছেন নাসির হোসেন, সাব্বির রহমান, মোসাদ্দেক হোসেনরা। সর্বশেষ এশিয়া কাপে সাতে ব্যাট করানো হয়েছে সৌম্য সরকারকে। এই চারজনেরই পরিচয় ব্যাটসম্যান। দরকার পড়লে হাতে তুলে দেওয়া হয় বল। মধ্যে অবশ্য সাতে সাইফউদ্দিনকেও পরীক্ষা করা হয়েছে। কিন্তু জায়গা পাকা করতে পারেননি তিনি। এবার তাকে দলে নেওয়ার কারণ তার থেকে ১০ ওভার বোলিংয়ের পাশাপাশি ব্যাটিংটা পাওয়া যাবে এই চিন্তায়।

সাইফউদ্দিনকে দলে টানার ব্যাখায় বিসিবি’র নির্বাচক হাবিবুল বাশার বলেন, ‘সাকিবের অনুপস্থিতিতে আমাদের দল সাজানোয় একটু ভিন্নতা আনতে হতে পারে। আমরা দল সাজানোর ব্যাপারে আগের পথে এবার আর হাঁটছি না। কারণ ওয়ানডে ম্যাচে পাওয়ার প্লে তিনটা। আর সেজন্য আমাদের শেষ দিকে বোলিংয়ে শক্তিশালী এমন একজন অলরাউন্ডার দরকার।’

এর আগের কৌশলের কথা উল্লেখ করে এই নির্বাচক বলেন, ‘আমারা আগে সাতে ব্যাট করার জন্য একজন ব্যাটিং অলরাউন্ডার রাখতাম। কিন্তু এখন আমাদের ওখানে একজন বোলিং অলরাউন্ডারের দরকার। যে কিনা সাতে ব্যাট করতে পারবে আবার দলের হয়ে ১০ ওভার বল করতে পারবে।’ সাতে একজন বোলিং অলরাউন্ডার দেশের বাইরে বিশেষ করে বিশ্বকাপে বড় অবদান রাখতে পারেন বলেও মনে করেন তিনি। এছাড়া এটা দলের একটা পরীক্ষা সেই ইঙ্গিতও দিলেন বাশার।

তিনি বলেন, ‘আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে একজন বোলিং অলরাউন্ডার আমাদের জন্য কতটা মানানসই হবে তা এখান থেকে দেখা যাবে। আমরা যখন দেশের বাইরে খেলতে যাবো আমাদের ব্যাটসম্যান অপেক্ষা বোলার বেশি দরকারী হয়ে উঠবে। কারণ আমাদের ব্যাটিং লাইন আপ মোটামুটি দাঁড়িয়ে গেছে। আর বিশ্বকাপ যেহেতু আমাদের মূল লক্ষ্য সেজন্য আমাদের হাতে থাকা সব উপায় পরীক্ষা করে দেখতে হবে। ওটাও বিশ্বকাপের একটা প্রস্তুতি।’-সমকাল।