আমার কাছে কী আশা করেন; আমি বোরখা পরে ঘুরবো?

খ্যাতিমান ব্যক্তিদের সম্পর্কে সাধারণ মানুষের জানার আগ্রহ সব সময় বেশি। আর তারকাখ্যাত হলে তো কথায় নেই। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের কল্যাণে সেই জানার আগ্রহ মিটাচ্ছে ভক্তরা। আর তাই তারকারাও ভক্তদের কাছে নিজের উপস্থিতি জানান দিতে বেছে নিয়েছেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম।

নিজেদের প্রতিদিনকার জীবন-যাপনের অনেক কিছুই তারা ভক্তদের জন্য ফেসবুক, ইনস্টাগ্রামসহ অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শেয়ার করেন। আর এতে অনেক সময় ভক্তরা যেমন বাহ বাহ দেয়, তারকারা যেমন প্রশংসা কুড়ায়। তেমনি কখনও কখনও বিরূপ পরিস্থিতির মধ্যেও পড়তে হয় তারকাদের। এই যেমন মডেল অভিনেত্রী পিয়া জান্নাতুলের কথায় বলা যায়।

সম্প্রতি ইনস্টাগ্রামে একটি ছবি পোস্ট করার সূত্র ধরে সমালোচিত হতে হচ্ছে মডেল অভিনেত্রী পিয়া জান্নাতুলকে।

ফেসবুক লাইভে এসে তার জবাব দিয়েছেন পিয়া। বলেছেন, পাবলিক ফিগার এজন্য এত কথা সহ্য করি। অনেকে শুনিয়ে শুনিয়ে অনেক কথা বলে। এত লম্বা, এত মোটা, এত শুকনা! অনেক কথা বলতে থাকে। আমরা তো কাউকে দেখে এসব বলি না। কারণ আমরা ম্যানার জানি। বাসায় শিখেছি, বড় হয়ে শিখেছি। আপনি একটা অশিক্ষিত পরিবার থেকে আসছেন এ সবাইকে আপনার বোঝাতে হবে? এটা খুব দুঃখজনক।

পিয়া আরও বলেন, জাতি হিসেবে আমরা খুবই শিক্ষিত, ভদ্র এটা আমরা বারবার দেখাতে চাই মানুষকে। আমি একটা কথা জানতে চাই… আমি মডেল। এর পাশাপাশি আমার পড়াশুনা শেষ, আইনজীবী হয়ে গিয়েছি কিংবা ব্যবসা করছি। কিন্তু মানুষ তো আমাকে মডেল হিসেবেই চেনে। তাহলে আপনারা আমার কাছে কী আশা করেন? আমি বোরখা পরে ঘুরব? বোরখা করে ছবি আপলোড দেব? হিজাব পরে, নেকাব পরে.. এরকম কোনো কিছু? আমি যদি মডেল নাও হতাম, আমি যা পরি নিজের পছন্দেই পরি।

তিনি আরও বলেন, বুঝতে পারি যে আমরা মানসিকভাবে অনেক কিছু গ্রহণ করতে প্রস্তুত না। ঠিক আছে প্রস্তুত হওয়ার দরকার নাই। তাই করেন যা আপনার করতে ইচ্ছে হয়। বাসায় বসে থাকেন। ফেসবুক চালাবেন না, ইনস্টাগ্রাম চালাবেন না। কিছু দেখা লাগবে না। কিন্তু মানুষকে কেন বিরক্ত করবেন? আমি এটাই বুঝি না। আপনার কথা শোনার জন্য কেউ বসে নাই। আপনার কী মনে হয় আপনার কথা শুনে আমি হিজাব পরতে নেমে যাব? না। আমি তাই করবো যা করতে আমি পছন্দ করি।