মাংস কম দেয়ায় কনে পক্ষের ওপর হামলা, পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে

কক্সবাজার সদরের ঈদগাঁওয়ের প্রিন্স অব ঈদগাঁও কমিউনিটি সেন্টারে বিয়ের অনুষ্ঠানে মাংস কম দেয়ায় কনে পক্ষের ওপর হামলা চালিয়েছে বর পক্ষ। পরবর্তীতে পুলিশকে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে হয়েছে। বুধবার বিকেলে এই ঘটনা ঘটেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, কক্সবাজার সদরের খুরু স্কুল পেশকার পাড়ার আবদুস শুক্কুরের ছেলে আলমগীরের সঙ্গে চৌফলদন্ডি উত্তর পাড়ার প্রবাসী আমির হামজার মেয়ে উম্মে সাদিয়ার বিয়ের দিন ধার্য ছিল বুধবার। দুই পক্ষের সিদ্ধান্তে প্রিন্স অব ঈদগাঁও কমিউনিটি সেন্টারে বিয়ে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বুধবার বিকেলে বর পক্ষের লোকজন নববধূ নিতে বিয়ের অনুষ্ঠানে আসেন।

এর আগে বর পক্ষের লোকজনকে আপ্যায়নের ব্যবস্থা করা হয়। বিয়ের অনুষ্ঠানে ৩০০ বরযাত্রী আসার কথা থাকলেও আসেন প্রায় ৪৫০ জন। এতে অতিরিক্ত লোকের খাবার সংকট দেখা দেয়। এরপরও সবাইকে আপ্যায়নের চেষ্টা করেন কনে পক্ষ। ৩০০ জনের খাবার ৪৫০ জনের মধ্যে বণ্টন করতে গিয়ে মাছ-মাংস এবং অন্যান্য তরকারির সংকট দেখা দেয়।

এ সময় মাংস কম দেয়ার অজুহাতে তরকারির বাটি ছুড়ে মারেন বর পক্ষের লোকজন। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে হাতাহাতির সৃষ্টি হলে ক্লাবের চেয়ার-টেবিল ভাঙচুর করেন বর পক্ষ। এ সময় পরিস্থিতি সামাল দিতে গেলে ক্লাবের ম্যানেজার আরফাতকে ছুরিকাঘাত করা হয়। এতে পরিস্থিতি আরও উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। পরবর্তীতে ঈদগাঁও পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ সদস্যরা গিয়ে ঘটনা নিয়ন্ত্রণে আনেন। পরবর্তীতে তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে।

এ বিষয়ে ঈদগাঁও তদন্ত কেন্দ্রের ওসি (তদন্ত) আবুল কায়েস আকন্দ বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ। তুচ্ছ ঘটনায় এমন পরিস্থিতি খুব দুঃখজনক ঘটনা।

সূত্র: ‍সময় নিউজ।