রোডসের বিশ্বকাপ পরিকল্পনায় বাদ পড়া ৩ ক্রিকেটার

অনেক সুযোগ পেয়েও তা কাজে লাগাতে পারেননি সৌম্য সরকার ও মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। তবে মাঝেমধ্যে একদিনের ক্রিকেটে জায়গা পেয়েও নিজেকে প্রমাণ করতে ব্যর্থ হয়েছেন মুমিনুল হক। তাই আসন্ন জিম্বাবুয়ে সিরিজে বাদ পড়েছেন তারা।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাদ পড়লেও এখনই তাদের আশাহত করছেন না টাইগারদের কোচ স্টিভ রোডস। সৌম্য, মুমিনুল ও মোসাদ্দেককে এখনো বিশ্বকাপের পরিকল্পনায় রেখেছেন বলেই মন্তব্য করেছেন এই ইংলিশ কোচ।

রোডস বলেন, ‘যখন কেউ দল থেকে বাদ পড়ে, তখন তারা একা হয়ে পড়ে, বিষণ্ণ হয় এবং নিজেকে বঞ্চিত মনে করে। সৌম্য ও মুমিনুলের মতো গুণগত মানসম্পন্ন খেলোয়াড়দের কাছ থেকে আমরা এমনটি আশা করি না। মোসাদ্দেকও দল থেকে ছিটকে গেছে। তবে তারা আবারও নিজেকে দলে আনতে সক্ষম। আমি জিম্বাবুয়ের বিপক্ষের অনুশীলন ম্যাচে থাকব।’

শুক্রবার (১৯ অক্টোবর) প্রস্তুতি ম্যাচে জিম্বাবুয়ে মুখোমুখি হচ্ছে বিসিবি একাদশের, যার নেতৃত্ব দিয়েছেন সৌম্য সরকার। আজ সৌম্য অপরাজিত ১০২ রান করেন সফরকারীদের বিপক্ষে। সৌম্যকে নিয়ে খুশি রোডস। তিনি বলেন, ‘সৌম্য জাতীয় ক্রিকেট লিগে দুটি ৭০-এর কোঠায় রান করায় এবং পাঁচ উইকেট পাওয়ায় আমি খুশি। তার সময়জ্ঞান অসাধারণ। সে এমন একজন খেলোয়াড়, যে জাতীয় দল থেকে কয়েকজনকে ছিটকে দেওয়ার সামর্থ্য রাখে। তাদের খেলতে হবে এবং এরপর তারা সুযোগ পাবে।’

এমনকি আরিফুল হক, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ও নাজমুল ইসলামের মতো আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অনভিজ্ঞরাও রয়েছে তার নজরে। সাত নম্বরে অভিষেকের অপেক্ষায় থাকা আরিফুল ও সাইফউদ্দিনের মধ্যে প্রতিযোগিতা হতে পারে। এ ব্যাপারে কোচ বলেন, ‘আরিফুল বল করতে পারে এমন একজন ব্যাটসম্যান। এনসিএলে তার দ্বিশতক অসাধারণ ছিল। আরিফুল, সৌম্য ও সাইফউদ্দিন একই ধাঁচের। আরিফুলকে আমরা পরখ করতে চাই। তারা ভালো নাকি মন্দ, সেটা মাঠে না নামালে কীভাবে বুঝব?’

মাঠেই প্রমাণ হবে, বিশ্বকাপে কাদের দলে থাকার সম্ভাবনা কতটুকু। উদীয়মান তরুণদের নজরে রাখছেন স্টিভ রোডসও। এখন নিজেদের প্রমাণ করে সুযোগ নিতে পারেন কি না তরুণ টাইগাররা, সেটিই দেখার অপেক্ষায় আছে ভক্তরা।