রেকর্ড গড়েই জিততে হবে বাংলাদেশকে

আলো স্বল্পতায় দিনের খেলা থামার আগে বাংলাদেশ খেলেছে ১০.১ ওভার। ২৬ রান তুলে লিটন দাস ও ইমরুল কায়েস থেকেছেন অপরাজিত। সবকটি উইকেট অক্ষত থাকায় তিনশর নিচে নেমে এসেছে লক্ষ্য। দলের মাঝে বেড়েছে আত্মবিশ্বাস। শেষপর্যন্ত সিলেট টেস্ট জিতেই ঢাকা ফিরতে উন্মুখ বাংলাদেশ।

প্রথম ইনিংসে ১৪৩ রানে গুঁটিয়ে যাওয়া দল কীভাবে ৩২১-এর পথ পাড়ি দেবে সেটি নিয়ে সন্দেহের অবকাশ থাকতে পারে। তবে তৃতীয় দিনেও উইকেট না ভাঙায় আশা দেখছেন বাংলাদেশের হেড কোচ স্টিভ রোডস।

‘উইকেটে কিন্তু সব বল বাঁক নিচ্ছে না। এখনও ব্যাটিং সহায়ক উইকেট মনে হয়েছে। তাছাড়া ইমরুল-লিটনের অপরাজিত থাকা আমাদের জন্য স্বস্তির। তারা যখন ড্রেসিংরুমে ফেরে তখন সবাই উজ্জীবিত হয়ে উঠেছে। কঠিন হলেও আমি ভীষণ আত্মবিশ্বাসী ম্যাচ জেতার ব্যাপারে।’

আড়াইশর কাছাকাছি রান তাড়া করে টেস্ট জয়ের রেকর্ড নেই বাংলাদেশের। ২০০৯ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে তাদের দ্বিতীয় সারির দলের বিপক্ষে ২১৫ রান তাড়া করে ৪ উইকেটে পাওয়া জয়ই এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের সেরা। সিলেট টেস্ট জিতলে নতুন রেকর্ডে নাম লেখাবে টাইগাররা। সেইসঙ্গে সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামের অভিষেক টেস্ট ম্যাচটি হবে স্মরণীয়।