‘বিদেশি ধার নয়, নিজ দেশের ব্যাংকের লোন নিয়ে বিমান কিনব’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আগে আমরা বিমান কিনতে বিদেশ থেকে টাকা ধার করতাম। এখন আমরা আমাদের ব্যাংক থেকেই নিজেরা লোন দিয়ে বিমান কিনব, যেন অন্য কোথাও থেকে ধার না নিতে হয়। নিজের টাকাতেই বিমান কিনব, সেই সিদ্ধান্ত নিয়েছি। কারণ আমরা আত্মমর্যাদা নিয়ে চলতে চাই। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ভিআইপি টার্মিনালে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের তৃতীয় ড্রিমলাইনার ‘গাঙচিল’ উদ্বোধন করার সময় তিনি এসব কথা বলেন।

এসময় তিনি বাংলাদেশ বিমানের যাত্রীসেবার মান উন্নয়নে সংশ্লিষ্ট সবাইকে কাজ করার আহ্বান জানান। অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমার গাঙচিল যেন ভালোভাবে ডানা মেলে উড়তে পারে, সবাই যত্ন নেবেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিমান পরিচালনার ক্ষেত্রে আমি সবাইকে বলবো আন্তরিকতা নিয়ে, দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে আপনারা এটি পরিচালনা করবেন। কারণ হচ্ছে আজ দেশ যদি উন্নত হয়, অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী হয়, দেশের উন্নতি যদি অব্যাহত থাকে, তাহলে সবাই সুন্দর জীবন পাবেন, সুখীভাবে চলতে পারবেন।

বিমানের সুনাম বাড়াতে আন্তরিক হওয়ার পরামর্শ দিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, আমরা আশা করি বিমানের সুনাম বৃদ্ধি, যাত্রীসেবার মান উন্নত করা এবং যে বিমানগুলো আমরা এনে দিচ্ছি সেগুলো যথাযথভাবে সংরক্ষণ করা হবে। যারা এর সঙ্গে সম্পৃক্ত আছেন, এটা সবার দায়িত্ব। কারণ এটা নিজের দেশের ও নিজস্ব সম্পদ। সে কথা মনে রেখে আপনাদের কাজ করতে হবে। বিমানের রুট বৃদ্ধি প্রসঙ্গে সরকারপ্রধান বলেন, বোয়িং থেকে আমাদের নবম প্লেন এলো। আরেকটা এলে ১০টি হবে।

কাজেই বোয়িং থেকে আমরা ১০টি বিমান কিনলাম। তবে এখনও আমরা আমেরিকা যেতে পারছি না। আশা করি খুব শিগগির এই সমস্যার সমাধান হবে। যে বিমানগুলো কেনা হয়েছে, এগুলো সরাসরি আমেরিকা যাওয়ার সক্ষমতা রাখে। আমরা চেষ্টা করছি লন্ডনে আরও স্লট বৃদ্ধি করতে। এছাড়া অন্যান্য দেশেও চেষ্টা করছি। আমাদের যাত্রীসেবা বাড়ানোর চেষ্টা করছি। প্রধানমন্ত্রী বলেন, জাতির জনক আমাদের রক্ত দিয়ে গেছেন। তার রক্তের ঋণ শোধ করতে হবে।

২৯টি বছর হারিয়ে গেছে এটা দুর্ভাগ্যের। এই সময়ে যারা ক্ষমতায় ছিল তারা উন্নয়ন করেনি, করতেও চায়নি। কারণ যারা ছিল তারা স্বাধীনতায় বিশ্বাস করতো না। গত ২৫ জুলাই দেশে আসে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের তৃতীয় বোয়িং ৭৮৭-৮ ড্রিমলাইনার ‘গাঙচিল’। কোনোরকম যাত্রাবিরতি ছাড়াই সিয়াটল থেকে সরাসরি ঢাকায় এসে অবতরণ করে বিমানটি। এর মধ্য দিয়ে বিমান বহরে উড়োজাহাজের সংখ্যা দাঁড়াল ১৫টিতে।-অর্থসূচক