জিম্বাবুয়ের কাছে হারল বাংলাদেশ

একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচে বিসিবি একাদশকে ৩ উইকেটে হারিয়েছে জিম্বাবুয়ে। প্রথমে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৪২ রান করে বিসিবি একাদশ। জিম্বাবুয়েকে জিততে হলে করতে হতো ১৪৩ রান। এই মামুলি লক্ষ্য নির্ধারিত ২০ ওভারের আগে ৩ উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে পৌছে যায় জিম্বাবুয়ে।

সহজ লক্ষ্য তারা করতে নেমে টাইগার বোলাদের দেখে শুনে খেলা শুরু করেন জিম্বাবুয়ের দুই ওপেনার হ্যামিল্টন মাসাকাদজা ও ব্রেন্ডন টেইলর। এই দুই ব্যাটসম্যান শুরুটা দারুন করলেও সেই ছন্দ বেশিক্ষণ ধরে রাখতে পারেনি মাসাকাদজা। দলীয় ৪২ রানে আফিফ হাসানের বলে বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফিরেন তিনি।

মাসাকাদজা আউটের পর ক্রিজে আসেন ক্রেগ ইরভিন কিন্তু আফিফের স্পিন ঘূর্ণিতে চাপে পরে সফরকারীরা। প্রথমে ইরভিন পরে লেগবিফোরের ফাঁদে পড়েন উইলিয়ামস। এরপরে ব্রেন্ডন টেইলর ও টিমেনসেন মারুমার ব্যাটিং নৈপূন্যে জয়ের বন্দরে পৌছে যায় জিম্বাবুয়ে।

এর আগে নারায়নগঞ্জের খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে টস জিতে আগে ব্যাট করে বিসিবি একাদশ। এই ম্যাচটি শুরু হয় দুপুর ১২: ১৫ মিনিটে। টস জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা দারুন করে বিসিবি একাদশের দুই ওপেনার সাইফ হাসান ও মোহাম্মদ নাঈম। তবে দলীয় ২৬ রানে দুর্দান্ত খেলা সাইফ হাসান এলবিডব্লিউ-এর ফাঁদে পড়ে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান। এই হার্ডহিটার ব্যাটসম্যান আউট হওয়ার আগে করেন ১ ছক্কা ও ১ চারে মোট ২১ রান।

তখন নাঈম শেখকে সঙ্গ দিতে মাঠে নামেন আরেক হার্ড হিটার ব্যাটসম্যান সাব্বির রহমান রুম্মন। তবে ছাক্কা হাকাতে গিয়ে দলীয় ৫৩ রানে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফিরে যায় নাঈম। এরপর ব্যাটসম্যান হিসাবে মাঠে নামেন মিস্টার ডিপেন্ডেবল মুশফিকুর রহিম।

মুশফিক ও সাব্বির জিম্বাবুয়ে বোলারদের উপর এক প্রকার তান্ডব চালায় কিন্তু ইনিংস বড় করতে ব্যর্থ ছিলেন এই দুই ব্যাটসম্যান। দলীয় ১০৬ রানে ৩০ রান করে আউট হয় সাব্বির আর ২৬ বলে ২৬ রান করে আউট হয় মুশফিক। শেষের দিকে আর কেউ সেভাবে উইকেটে দাঁড়াতে পারেনি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর: জিম্বাবুয়ে: ১৪৪/ ৩ ( ১৭.২ ওভার);  বিসিবি একাদশ: ১৪২/ ৭ ( ২০ ওভার)

বিসিবি একাদশ: সাইফ হাসান (অধিনায়ক), নাঈম শেখ, সাব্বির রহমান, মুশফিকুর রহিম, আফিফ হোসেন, ইয়াসির আলী রাব্বি, সাব্বির হোসেন, জাকির আলী অনিক, মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিন, আমিনুল ইসলাম, মোহাম্মদ সুমন খান, ইয়াসিন আরাফাত মিশু, সফিকুল ইসলাম।

জিম্বাবুয়ে একাদশ: হ্যামিল্টন মাসাকাদজা, ব্রেন্ডন টেইলর, রায়ান বার্ল, শান উইলিয়ামস, নেভিল মাদজিভা, টিনোটেন্দা মুটম্বোডজি, টনি মুনিয়ঙ্গা, কাইল জারভিস, টেন্ডাই চাতারা, ক্রেগ ইরভিন, টিমেনসেন মারুমা, রেজিস চকভাভা, রিচমন্ড মুতুম্বো, ক্রিস এমপোফু