বৃদ্ধাশ্রমে ছেলের সেবা করতে গেলেন মা!

এতদিন পিতা-মাতার সেবা করত সন্তানেরা। এবার এক মা তার সন্তানের সেবা করতে বৃদ্ধাশ্রমে চলে এসেছেন তিনি। যুক্তরাজ্যের লিভারপুল শহরের একটি বৃদ্ধাশ্রমে ছেলের সেবা করতে ছুটে গেলেন ৯৮ বছর বয়সী মা। ছেলে টম বেশিরভাগ সময়ই কাটিয়েছেন মা অ্যাডার সঙ্গে। কর্মজীবনে অ্যাডা ছিলেন একজন নার্স। টম কেটিংয়ের বয়স ৮০ বছর।দীর্ঘ জীবনে বিয়ের পিঁড়িতে বসেননি টম, থাকেন যুক্তরাজ্যের লিভারপুল শহরের একটি বৃদ্ধাশ্রমে।

কিছুদিন হলো টমের শরীর মোটেও ভালো যাচ্ছে না। তাই সন্তানের সেবা করতে বৃদ্ধাশ্রমে ছুটে গেছেন তার ৯৮ বছর বয়সী মা অ্যাডা। এখন সন্তানের সেবা করতে তার কোনো সমস্যা হবে না বলে জানিয়েছেন তিনি। ফেলে আসা দিনগুলোর কথা স্মরণ করতে করতে অ্যাডা বলেন, “প্রতি রাতে আমি টমকে ‘শুভরাত্রি’ জানিয়ে ঘুমাতে যেতাম আর উঠে ‘শুভ সকাল’ জানাতাম। বেলা শেষে যখন আমি কাজ থেকে ফিরে আসতাম, তখন টম আমাকে জড়িয়ে ধরত। বলত, সারা জীবন তুমি এভাবেই আমার মা হয়ে থেকো।”

এদিকে, মাকে কাছে পেয়ে খুবই খুশি টম। তিনি বলেন, ‘এখানকার (বৃদ্ধাশ্রম) লোকজন অনেক ভালো। আর এখন তো আমার মা এখানে এসেছেন। আমি খুবই খুশি।’এ বিষয়ে অ্যাডার নাতনি ডেবি হাইয়্যাম বলেন, ‘এখন কেউ আর তাদের আলাদা করতে পারবে না। বৃদ্ধাশ্রম থেকে জানিয়েছে, তাদের ২৪ ঘণ্টা খেয়াল রাখা হবে।’

বৃদ্ধাশ্রমের ব্যবস্থাপক ফিলিপ ড্যানিয়েল জানান, ‘একই বৃদ্ধাশ্রমে মা আর ছেলে একসঙ্গে বসবাস করছে এমন ঘটনা বিরল। আমরা মা-সন্তানের জীবনকে আরো মধুর করে তুলব।

সূত্র: ডেইলি মেইল