পাগলা মসজিদের দানবাক্সে ১ কোটি ৫০ লাখ টাকা

কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক পাগলা মসজিদের দানের বাক্স থেকে এবার এক কোটি ৫০ লাখ ৮৪ হাজার ৫৯৮ টাকা পাওয়া গেছে। এছাড়াও বিপুল পরিমাণ স্বর্ণালংকার, রোপ্য এবং বিদেশি মুদ্রাও মিলেছে।

আজ শনিবার প্রথা অনুযায়ী তিন মাস পর সিন্দুক খোলার কথা থাকলেও জেলা প্রশাসনের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে এবার মসজিদে রাখা আটটি সিন্দুক খোলা হয় ৩ মাস ১৩ দিন পর।

এর আগে চলতি বছরের ১৩ জুলাই দানবাক্সগুলোতে পাওয়া গিয়েছিল এক কোটি ১৪ লাখ ৭৪ হাজার ৪৫০ টাকা। বিপুল পরিমাণ নগদ ওই টাকা ছাড়াও তখন পাওয়া গিয়েছিল স্বর্ণ-রুপার অলংকার ও বৈদেশিক মুদ্রা। এবার সোনা-রুপার পরিমাণও গতবারের চেয়ে বেশি।

শনিবার সকাল ৯টায় সিন্দুক খোলার পর টাকাগুলোকে প্রথমে বস্তায় ভরা হয়। পরে শুরু হয় টাকা গণনার কাজ। গণনা চলে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। এছাড়াও প্রাপ্ত সোনা-রুপার অলংকার অপর একটি বাক্সে ভরে তা সরাসরি ট্রেজারিতে নিয়ে রাখা হয়।

টাকা গণনার কাজ তদারকি করেন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. গোলাম মোস্তফা, নেজারত ডেপুটি কালেক্টরেট মীর মো. আল কামাহ তমাল, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাহমুদুর রহমান, উবায়দুর রহমান রাসেল, পাগলা মসজিদের প্রশাসনিক কর্মকর্তা শওকত উদ্দিন ভূঞা ও রুপালী ব্যাংকের এজিএম অনুফ কুমার ভদ্র প্রমুখ।-আমাদের সময়।