দুর্দান্ত হাফসেঞ্চুরি করলেন মোহাম্মদ নাঈম

নাগপুরে টসভাগ্য সহায় হয়েছে বাংলাদেশ অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের। প্রত্যাশিতভাবেই টস জিতে আগে ফিল্ডিং করেছে বাংলাদেশ। টস জিতেই সিরিজ জয়ের সম্ভাবনা আরো বাড়িয়ে তুলেছে টাইগাররা। রেকর্ড অন্তত এটাই বলছে। ২০ ওভার খেলে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৭৪ রান সংগ্রহ করে ভারত। ফলে বাংলাদেশকে ১৭৫ রানের টার্গেট দিল ভারত।

জবাবে, এখন ব্যাটিং করছে বাংলাদেশ। শুরুতেই আউট হন লিটন দাস। ৮ বলে ৯ রান করে আউট হন তিনি। পরে শূন্য রানে আউট হন সৌম্য সরকার। পরে নাঈম ও মিঠুনের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে ভালভাবেই এগুচ্ছে বাংলাদেশ। দুর্দান্ত হাফসেঞ্চুরি করেন মোহাম্মদ নাঈম। সর্বশেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত বাংলাদেশের স্কোর: ৯২/২ ওভার: ১১।

শুরুতেই রোহিতকে বোল্ট আউট করে দিলেন শফিউল। পরে আবারো উইকেট পান শফিউল। ফেরান শিখর ধাওয়ানকে। পরে ভয়ঙ্কর রাহুলকে আউট করেন আল আমিন। পরে বোলিংয়ে আসেন সৌম্য সরকার। একই ওভারে দুই বিগ উইকেট পান সৌম্য সরকার। আউট করেন শ্রেয়াস ও প্যান্টকে।

নাগপুরের উইকেট সাধারণত রাজকোটের মতো ব্যাটিং স্বর্গ হয় না। এখানে খেলা তিন টি-২০’র দুটিতেই হেরেছে ভারত। এই ভেন্যুতে দলীয় সর্বনিম্ন ৮৯ রানে অলআউট হওয়ার রেকর্ডটাও স্বাগতিকদের। এখানে অনুষ্ঠিত ১১টি টি-২০’র ৮ ম্যাচে আগে ব্যাট করা দল জয় পেয়েছে। সর্বোচ্চ রান তাড়া করে জয়ের রেকর্ড মাত্র ১২৩। তাই ব্যাটসম্যানদের চ্যালেঞ্জটাই যে বেশি।

সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচ। দুই দলই একটি করে ম্যাচে জয় পাওয়ায় এই ম্যাচটি হয়ে দাঁড়িয়েছে অলিখিত ফাইনাল। দিল্লিতে টাইগারদের দারুণ জয়ের পর রাজকোটে দুর্দান্তভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছে ভারত। এবার ট্রফির লাড়াই নাগপুরে।

বাংলাদেশের লাখো কোটি ক্রিকেট ভক্ত অপেক্ষা ভারতের বিপক্ষে প্রথম সিরিজ জয়ের। তবে এটা যে খুবই কঠিন কাজ। রাজকোটের একপেশে ম্যাচের পর সেটা যেনো আরো কঠিন মনে হচ্ছে। যদিও বিশ্বাস হারাচ্ছেন না কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো।

তিনি বলেন, নাগপুরে আমরা ১-১ এ সমতা নিয়ে আসবো সেটা কি কেউ সিরিজ শুরুর আগে বিশ্বাস করতো? সেটি তো হয়েছেই। তাই আস্থা হারাচ্ছি না।

বাংলাদেশ একাদশ: লিটন দাস, মোহাম্মদ নাঈম, সৌম্য সরকার, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), মোহাম্মাদ মিথুন, আফিফ হোসেন, মোস্তাফিজুর রহমান, আল আমিন হোসেন, আমিনুল ইসলাম এবং শফিউল ইসলাম।

ভারত একাদশ: রোহিত শর্মা, শিখর ধাওয়ান, লোকেশ রাহুল, শ্রেয়াস আয়ার, মানিশ পাণ্ডে, ঋষভ পান্ট, শুভম দুবে, ওয়াশিংটন সুন্দর, যুজবেন্দ্র চাহাল, দিপক চাহার, খলিল আহমেদ।