থার্টি ফার্স্ট নাইট ঘিরে যত নির্দেশনা

ইংরেজি নববর্ষ বরণের জন্য সারাবিশ্ব প্রস্তুত হলেও দেশের আই’নশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর দেয়া নির্দেশনা অনুযায়ী এই রাতে উন্মুক্ত স্থানে বর্ষবরণের কোনো আয়োজন করতে পারবেন না রাজধানীবাসী। এর বাইরেও ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) পক্ষ থেকে কিছু নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। যাতে যান ও সাধারণ মানুষের চলাচলের উপর কিছুটা বিধি নিষেধ আরোপ করা হয়েছে।

ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম রাজধানীবাসীকে আতশবাজি, পটকাবাজি, বেপরোয়া গাড়ি ও মোটরসাইকেল চালনাসহ যেকোনো ধরনের অশো’ভন আচরণ থেকে বিরত থাকার অনুরোধ জানিয়েছেন। বিরত থাকতে বলেছেন, উন্মুক্ত স্থানে কোনো ধরনের অনুষ্ঠান ও সমবেত হওয়া থেকে। থার্টি ফাস্ট নাইটে ‘বাড়াবাড়ি’ বন্ধ করতে কিছু নির্দেশনা নেয়া হয়েছে বলে আগেই জানিয়েছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

গোয়েন্দা রিপোর্ট অনুযায়ী তার কাছে কোনো ধরণের নাশ’কতামূলক কর্মকাণ্ডের শ’ঙ্কার তথ্য না থাকলেও তিনি বলেছেন, থার্টি ফার্স্ট নাইটে আগে যেমন হুলস্থূল করা হতো, রাস্তাঘাট বন্ধ করে ভয়াবহ যে পরিস্থিতি তৈরি করা হতো, সে রকম যাতে না হয়, সবাই যাতে ভালোভাবে আনন্দ প্রকাশ করতে পারে, কেউ যেন বাড়াবাড়ি করতে না পারে সে জন্য আমরা আগে থেকেই ব্যবস্থা নিয়েছি। এসব বিষয়ের বাইরে ট্রাফিক ব্যবস্থাপনায়ও সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা দেয়া হয়েছে ডিএমপির পক্ষ থেকে। এতে বলা হয়েছে,

১। গুলশান, বনানী ও বারিধারায় প্রবেশের সকল রাস্তা রাত ৮টা থেকে বন্ধ রাখা হবে। তবে উক্ত এলাকায় বসবাসরত সম্মানিত নাগরিকগণের প্রবেশের জন্য কামাল আতাতুর্ক এভিনিউ (কাকলী ক্রসিং) এবং আমতলী ক্রসিং (মহাখালী) খোলা রাখা হবে। সেক্ষেত্রে গুলশান, বনানী ও বারিধারায় বসবাসরত সম্মানিত নাগরিকদের রাত ৮টার মধ্যে ওই এলাকায় প্রবেশের জন্য অনুরোধ জানানো হচ্ছে।

২। রাত ৮টা থেকে গুলশান, বনানী ও বারিধারা এলাকায় প্রবেশের ক্ষেত্রে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল এলাকা-ফিনিক্স রোড ক্রসিং, বনানী ১১ নং রোড ক্রসিং, চেয়ারম্যান বাড়ি ক্রসিং, শুটিং ক্লাব, বাড্ডা লিংক রোড, ডিওএইচএস বারিধারা-ইউনাইটেড হাসপাতাল ক্রসিং ও নতুন বাজার ক্রসিং উক্ত এলাকাসমূহে প্রবেশের জন্য ব্যবহার করা যাবে না, তবে এসব এলাকা থেকে বের হওয়ার ক্ষেত্রে এসব ক্রসিং ব্যবহার করা যাবে।

৩. একইভাবে ৩১ ডিসেম্বর সন্ধ্যা ৬টা হতে পরদিন ১ ডিসেম্বর ভোর ৬টা পর্যন্ত শুধু শাহবাগ ক্রসিং এবং নীলক্ষেত ক্রসিং দিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পরিচয় প্রদর্শন এবং শনাক্তকরণ পূর্বক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় যানবাহন নিয়ে প্রবেশ করতে পারবে। এজন্য পরিচয়পত্র সঙ্গে রাখতে হবে।

৪. পলাশী ক্রসিং, ভাস্কর্য ক্রসিং, বকশি বাজার ক্রসিং, রমনা চত্বর ক্রসিং, দোয়েল চত্বর ক্রসিং এবং শহীদুল্লাহ হল ক্রসিং দিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় সব প্রকার গাড়ি প্রবেশ নিষি’দ্ধ থাকবে।

৫। হাইকো’র্ট পয়েন্ট থেকে আগত সব প্রকার গাড়িসমূহ দোয়েল চত্বর বামে মোড় নিয়ে শহীদুল্লাহ হল হয়ে চাঁনখারপুল ক্রসিং দিয়ে বের হয়ে যেতে পারবে।

৬। কেউ বেপরোয়া, মদ্যপ ও বিপজ্জনক অবস্থায় গাড়ি চালালে তাদের বি’রুদ্ধে যথাযথ আই’নগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

৭। সড়ক ব্যবহার সংক্রান্তে যে কোনো জরুরি প্রয়োজনে ফোন করুন : ডিসি ট্রাফিক (নর্থ)- ০১৭১৩৩৭৩২২৫, এডিসি ট্রাফিক (নর্থ)- ০১৭১৩৩৭৩২২৬, এসি ট্রাফিক (গুলশান)- ০১৭১৩৩৯৮৪৯৭, এসি ট্রাফিক (উত্তরা)- ০১৭১৩৩৯৮৪৯৮, ডিসি ট্রাফিক (সাউথ)- ০১৭১৩৩৭৩২২৩, এডিসি ট্রাফিক (সাউথ)- ০১৭১৩৩৭৩২২৪, ডিসি (গুলশান)- ০১৭১৩৩৭৩১৬৬ ও ডিসি (উত্তরা)- ০১৭১৩৩৭৩১৫৬।

যেকোনো অনা’কাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতিতে সংশ্লিষ্ট সম্মানিত নাগরিকদের কর্তব্যরত পুলিশ সদস্যদের সাহায্য গ্রহণের পরামর্শ দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি কর্তব্যরত পুলিশ সদস্যদের সহায়তা করার জন্য নগরবাসীকে অনুরোধ করেছে ডিএমপি।-সময় নিউজ।