সেরার তালিকায় সাকিবের সেই সেঞ্চুরি

অবি’স্মরণীয় এক বিশ্বকাপ কাটিয়েছেন বাংলাদেশের সাকিব আল হাসান। ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে চোখ ধাঁধানো পারফরম্যান্সে ব্যাট হাতে নজর কেড়েছেন সবার। ক্রিকেট অঙ্গনে নিজেকে চিনিয়েছেন নতুন করে। এরপরই ম্যাচ ফি’ক্সিং কা’ণ্ডে তথ্য গো’পন করায় দুই বছরের জন্য সবধরনের ক্রিকেট থেকে নি’ষি’দ্ধ হন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। অবশ্য দো’ষ স্বীকার করায় এক বছরের শা’স্তি স্থগিত। তবে বিশ্বকাপে ঠিকই নিজের জাত চিনিয়েছেন তিনি।

২০১৯ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপটা স্বপ্নের মতো কাটিয়েছেন বাংলাদেশ দলের অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। ব্যাট হাতে ছিলেন জীবনের সেরা ফর্মে। টুর্নামেন্টের ৮ ম্যাচে ৫ ফিফটি ও ২ সেঞ্চুরিতে প্রায় ৮৭ গড়ে ৬০৬ রান করেছিলেন সাকিব। যে ম্যাচে ফিফটি পেরুতে পারেননি, সেটিতেও করেছিলেন ৪১ রান। সবমিলিয়ে বিশ্বকাপের তৃতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ছিলেন সাকিব। সেই বিশ্বকাপের সুবাদেই উইজডেনসহ বেশ কিছু ওয়েবসাইটের ২০১৯ সালের বর্ষসেরা ওয়ানডে একাদশে ছিলেন তিনি।

সে ধারাবাহিকতায় এবার ২০১৯ সালের বর্ষসেরা ওয়ানডে ব্যাটিং ইনিংসের জন্যও মনোনীত হয়েছেন সাকিব। জনপ্রিয় ক্রিকেটভিত্তিক ওয়েবসাইট ক্রিকইনফো বাছাই করছে ২০১৯ সালের সেরা ওয়ানডে ইনিংসগুলো। সেখানে সংক্ষিপ্ত তালিকায় রাখা হয়েছে ১০টি ইনিংস। এই ১০ ইনিংসের ৯টিই আবার বিশ্বকাপের। যার মধ্যে রয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সাকিব আল হাসানের ১২৪ রানের ইনিংসটিও।

মনোনীত প্রতিটি ইনিংসের ব্যাপারেই নিজেদের মূল্যায়নও জানিয়েছে ক্রিকইনফো। সাকিবের সেই ইনিংস সম্পর্কে তারা লিখেছে, ‘তিন নম্বরে ব্যাট করতে নেমে বিশ্বকাপে নিজের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি করার মাধ্যমে বাংলাদেশকে রান তাড়া করে নিজেদের ইতিহাসের সবচেয়ে বড় জয় এনে দিয়েছিলেন সাকিব আল হাসান। পুরো ইনিংস খেলার সময় ডি/এল মেথডের ব্যাপারেও চিন্তা করতে হয়েছে।’

‘ওয়েস্ট ইন্ডিজের বোলাররা তার পাজর বরাবর বাউন্সার করছিল কিন্তু সাকিব অসামান্য দক্ষতায় সেগুলোকে পাল্টা জবাব দিয়েছিল। টন্টনের ছোট বাউন্ডারি, আন্দ্রে রাসেলের অফফর্ম এবং খানিক ভাগ্যের সহায়তায় লিটন দাসকে নিয়ে ১৮৯ রানের জুটি গড়েছিলেন সাকিব। নিজের পুরো ইনিংসে মনোমুগ্ধকর কিছু বাউন্ডারি হাঁকিয়েছিলেন সাকিব। আবার কিছু শটে অল্পের জন্য বেঁচেও গিয়েছিলেন।’