মাছের ডিম খেলে কী কী উপকার পাবেন জানেন?

মাছের ডিম খেলে- মাছের ডিম খেতে কার না ভাল লাগে। অনেকে আবার ডিম খাওয়ার জন্য মাছ কিনে থাকেন। কিন্তু জানেন কী, মাছের ডিমের কত উপকারিতা? চিকি’ৎসাকরা বলছেন, মাছের ডিমে নানা পু’ষ্টিগুণ রয়েছে। শুধু তাই নয়, ডিমে এমন কিছু উপাদান আছে, যা শরীরের নানা সমস্যা দূর করে। আসুন জেনে নিন মাছের ডিম খেলে কী কী উপকার পাবেন-

১. মাছের ডিম খেলে র’ক্ত পরি’ষ্কার হয় এবং হিমো’গ্লো’বিন বাড়ে। ফলে অ্যা’নিমিয়া থেকে রেহাই পাওয়া যায়। ২. মাছের ডিমে ভি’টামিন এ থাকার ফলে চোখ ভাল থাকে। ৩. হা’ড় শ’ক্ত হয়। কারণ মাছের ডিমের মধ্যে থাকে ভিটা’মিন ডি। ৪. ভিটা’মিন ডি থাকার ফলে দাঁতও ভাল থাকে। ৫. ভিটা’মিন ডি থাকার ফলে যাদের হা’র্টের অসুখ আছে, তাদের পক্ষেও মাছের ডিম ভাল। ৬. উচ্চ র’ক্তচা’পের রো’গীদের জন্যও এই খাবার খুব উপকারী।৭. অ্যাল’ঝাইমারের রো’গীরাও মাছের ডিম খেতে পারেন, উপকার পাবেন।

ডিম ফ্রিজে রাখছেন না তো?

বর্তমানে ঘরে ঘরে ফ্রিজ থাকায় বেশি করে ডিম কিনে সংর’ক্ষণের প্রবণা বেড়েছে। তবে বিশেষ’জ্ঞদের মতে, ফ্রিজে ডিম রাখলে তাতে ডিমের স্বা’স্থ্য ঠিক থাকলেও আপনার স্বা’স্থ্যের ক্ষ’তি হচ্ছে। তারা বলছেন ফ্রিজের ভিতর ডিম রাখলে তা স্বা’স্থ্যের জন্য ক্ষ’তিকারক। পু’ষ্টিবিদদের মতে, ফ্রিজের তাপমাত্রা শূন্যরও বেশ খানিকটা নিচে থাকে বলে এখানে খাবার-দাবার রাখা নিরাপদ। কিন্তু ডিমের ক্ষেত্রে ব্যপারটা ঠিক উল্টো।

ফ্রিজে ডিম রাখলে তার মধ্যে এক ধরনের ক্ষ’তিকর ব্যা’কটিরিয়া জন্ম নেয়। আমাদের মধ্যে রেশিরভাগই ফ্রিজ থেকে ডিম বের করেই রান্না করে ফেলি। তা’পমাত্রার পরিবর্তন না ঘটায় ওই সব ক্ষ’তিকর ব্যা’কটিরিয়া ডিমের মধ্যে জী’বিত অবস্থাতেই থাকে। ফলে খাদ্যে বি’ষক্রিয়া বা নানা রকমের সংক্র’মণের আ’শঙ্কা অনেকটাই বেড়ে যায়। পেটের সমস্যাও হতে পারে এর থেকেই। এজন্য ফ্রিজ থেকে ডিম বের করে বাইরের স্বাভাবিক তাপমাত্রায় অনেক ক্ষণ রেখে ডিম রান্না করলে বিপদের ঝুঁ’কি খানিকটা কম। কিন্তু সংক্র’মণের আ’শঙ্কা একটা থেকেই যাচ্ছে।

এ দিকে বেশি দিন বাইরে রাখলেও তো ডিম ন’ষ্ট হয়ে যাবে। তাহলে উপায়? উপায় আছে। বিশে’ষজ্ঞরা এই সমস্যার খুব সহজ সমাধান বের করেছেন। ডিম কিনুন অল্প সংখ্যায়, ঠিক যত টুকু প্রয়োজন বা দু’-এক দিনেই যাতে সব রান্না করে ফেলা যায়। আর ফ্রিজ থেকে ডিম বের করে বাইরের স্বাভাবিক তাপমাত্রায় খানিক’ক্ষণ রেখে তবেই রান্না করুন। তাহলেই আর কোনও সংক্র’মণের আ’শ’ঙ্কা থাকবে না।