হঠাৎ ওলট পালট রাশিয়া, পদত্যাগ করল গোটা সরকার

একে একে পদ’ত্যাগ করলেন সকলেই। বুধবার পার্লামেন্টে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন জানান, দেশের সংবিধানের আমূল সংস্কা’র দরকার। তার পরেই একে একে ইস্তফা দিলেন রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী দিমিত্রি মেদভেদেভ-সহ সরকারের অন্য প্রতিনিধিরা। এ দিন পার্লামেন্টে বার্ষিক অধিবেশনে ভাষণ দেন ভ্লাদিমির পুতিন। সেখানেই তিনি তাঁর এই প্রস্তাবনা পেশ করেন। পার্লামেন্টের শক্তি বৃদ্ধির জন্যে রাশিয়া সংবিধানের সং’স্কার প্রয়োজন।

একটি গণভোটেরও প্রস্তাব দেন তিনি। তাঁর কথায়, ‘‘আমার মনে হচ্ছে সংবিধান সংশো’ধনী সংক্রান্ত প্রস্তাবনাটি গণভোটের দাবি রাখে।’’ যদিও ভোটগ্রহণের কোনও তারিখ ঘোষণা করেননি তিনি। রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী দিমিত্রি মেদভেদেভ নিজের পদ’ত্যাগ প্রসঙ্গে আন্তর্জাতিক এক সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘‘একটি তাৎপর্যপূর্ণ সংস্কা’রের লক্ষ্যে এগোচ্ছেন রাষ্ট্রপ্রধান। সুশাসনের লক্ষ্যে তাঁকে নিজের ইচ্ছে মতো সং’স্কার প্রস্তাব আনার সুযোগ দেওয়া উচিত।’’ যদিও সংস্কা’রের আগে পর্যন্ত কাজ করতে হবে বর্তমান সরকারকেই।

আন্তর্জাতিক রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা মনে করছেন, সংশো’ধনী এনে পার্লামেন্টে সরকার গঠন করার বিষয়টি আই’নি করা হবে। একই সঙ্গে, সরকারের কাজে তৃ’প্ত না হলে যে কোনও সময়ে সেই সরকারকে ফেলে দিতে পারবেন রাষ্ট্রপ্রধান। পুতিন অবশ্য বলছেন, জনমতকে আরও বেশি মর্যাদা দিয়ে রাশিয়ার ক্ষমতায়নের জন্যেই এই পদক্ষেপ।