জামিনে বেরিয়েই নি’র্যাতিতার মাকে পি’টিয়ে মা’রলো ‘বখা’টেরা’

ছবি: সংগৃহীত

কিশোরী মেয়েকে যৌ’ন নি’র্যাতনের অভিযো’গে অভিযু’ক্তরা জামিনে মুক্তি পেয়ে পি’টিয়ে খু’ন করল নির্যা’তিতার মাকে। এই হাম’লার ঘটনার একটি ভি’ডিও সামাজিক যোগা’যোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে তা নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়। ঘটনাটি ভারতের উত্তরপ্রদেশের কানপুরে ঘটেছে বলে ভারতীয় সম্প্র’চার মাধ্যম ‘এনডিটিভি’র এক প্রতিবেদনে প্রকাশ করা হয়েছে। ৪০ বছর বয়সী ওই নারীকে কানপুরের একটি হাসপাতালে নেয়ার পর তার মৃ’ত্যু হয়।

এই ঘটনার ৫ সেকেন্ডের একটি ভি’ডিও ক্লি’প প্রকাশ পেয়েছে, যাতে দেখা যাচ্ছে, লাল জামা পরা এক নারী পড়ে আছেন মাটিতে। আর পা দিয়ে তার মুখে লা’থি মা’রছে সাদা পাঞ্জাবি পরা এক লোক। কানপুরে এক বাড়ির ছাদ থেকে ধারণ করা হয় ওই ভি’ডিও। জানা গেছে, এর আগে ওই নারীর কিশোরী মেয়েকে শ্লী’লতা’হানি করেছিল ছয় দু’ষ্কৃতী’কারী। থা’নায় যৌ’ন নি’র্যাতনের মা’মলা করলে তাদের গ্রে’ফতার করে পুলিশ।

এরপর স্থানীয় আ’দালত থেকে জামিনে মুক্তি পেয়ে দু’ষ্কৃতিকা’রীরা ওই কিশোরীর বাড়িতে হা’মলা চালায়। নিগৃহীতা কিশোরী ও তার মাকে বে’ধড়ক মা’রধর করে তারা। আশ’ঙ্কাজ’নক অবস্থায় কিশোরীর মাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হলে চিকি’ৎসাধীন অব’স্থায় তার মৃ’ত্যু হয়। পুলিশ জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার দলবল নিয়ে ওই কিশোরীর বাড়িতে চড়াও হয় জামিনে মুক্তিপ্র ‘প্তরা। কিশোরীর পরিবারকে শ্লী’লতাহা’নির মা’মলা তুলে নেয়ার জন্য চাপ দেয় তারা। কিন্তু মেয়েটির মা তাতে রাজি না হওয়ায় বেধ’ড়ক মা’রধর করা হয়।

পুলিশ সুপার রাজকুমার আগরওয়াল জানান, হা’মলাকারীদের মধ্যে তিনজন এখনো পলা’তক আছে। বাকি তিনজনকে গ্রে’ফতার করা হয়েছে। পুলিশ গ্রে’ফ’তারকৃ’তদের বি’রুদ্ধে নতুন করে খু’নের অভি’যোগ দায়ের করেছে।