স্ত্রী ডি’ভোর্স দিলে দেনমোহরের সমান ক্ষ’তিপূরণ দাবি

স্ত্রী ডি’ভোর্স দিলে দেন মোহরের সমপরিমাণ টাকা ক্ষ’তিপূরণের দাবিতে মানবব’ন্ধন করেছে বাংলাদেশ মেনস রাইটস ফাউন্ডেশন (বিএমআরএফ)। সোমবার (৩ ফেব্রুয়ারি) সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে পুরুষ নির্যা’তন প্রতি’রোধ দিবস উদযাপন উপলক্ষে এ মানবব’ন্ধন করা হয়।

মানবব’ন্ধনে বক্তারা বলেন, গত বছরের জানুয়ারি থেকে জুন পর্যন্ত ছয় মাসে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মোট চার হাজার ৫৬৭টি বিবাহ বিচ্ছে’দের আবেদন জমা পড়েছে। একদিনে সর্বোচ্চ বিবাহ বিচ্ছে’দের জন্য ২৬টি আবেদন করা হয়েছে। এর মধ্যে মাত্র পাঁচ শতাংশ দম্পতি বিচ্ছে’দে না গিয়ে পুন’রায় সংসার করার বিষয়ে একমত হয়েছেন।

এক পর্যবে’ক্ষণের কথা উল্লেখ করে বক্তারা বলেন, ঢাকার উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বিচ্ছে’দের আবেদনের প্রায় ৭০ শতাংশই নারী পক্ষ থেকে করা হয়েছে। উত্তর সিটির গুলশান ও বনানীর অভিজাত পরিবারের শিক্ষিত, বিত্তবান নারী এবং দক্ষিণের মোহাম্মদপুর ও কারওয়ান বাজারের কর্মজীবী নারীরা তুলনামূলক বেশি বিচ্ছে’দে যেতে চাচ্ছেন।

নারী নি’র্যাতন এবং যৌতু’কের মাম’লা গুলো বিশ্লে’ষণ করে সংগঠনের চেয়ারম্যান শেখ খাইরুল আলম বলেন, দু’ষ্টু নারীরা বিয়ের নামে কা’বিনের ব্যবসা করে নি’রীহ পুরুষের কাছ থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন। আর দেন মোহরের টাকা আদায়ের জন্য করা হচ্ছে অধিকাংশ মা’মলা।

তিনি বলেন, পুরুষ নি’র্যাতন প্রতি’রোধ দিবসে আমাদের একটাই দাবি, স্ত্রী ডি’ভোর্স দিলে দেনমোহ’রের সমপরিমাণ টাকা ক্ষ’তিপূরণ দিতে হবে। ২০১৬ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি পুরুষ নির্যা’তন প্রতি’রোধ আ’ন্দো’লন যাত্রা শুরু করে। সেই থেকে এদিন পুরুষ নির্যা’তন প্রতি’রোধ দিবস হিসেবে পালন করে আসছি। এ দিবসটিকে জাতীয় এবং আন্তর্জাতিকভাবে পালনের দাবিও জানান সংগঠনের চেয়ারম্যান।

বাংলাদেশ মেনস রাইটস ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান শেখ খায়রুল আলমের সভাপতিত্বে মানব’বন্ধনে আরও বক্তব্য দেন ঢাকা মহানগরের আহ্বায়ক মো. তাইফুর রহমান, যুগ্ম-আহ্বায়ক মাজেন ইবনে আজাদ, আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।

সূত্র: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর