ভারতের কাছ থেকে ৬টি ঘোড়া কিনলো বাংলাদেশ পুলিশ

বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে বাংলাদেশ পুলিশের জন্য ৬ টি ঘোড়া আমদানি করা হয়েছে। পুলিশের প্রশিক্ষণ কাজে ঘোড়াগুলো ব্যবহার করা হবে বলে জানা গেছে।মঙ্গলবার (০৪ ফেব্রুয়ারি) রাত ৮ টায় ভারতের পেট্রাপোল স্থলবন্দর দিয়ে একটি এসি এম্বু’লেন্সে ঘোড়াগুলো বেনাপোল স্থলবন্দরে প্রবেশ করে। পরে রাত ১২ টায় কাস্টমস ও বন্দরের আনুষ্ঠানিকতা শেষে ছাড় করা হয়।

এদিকে ঘোড়া দেখতে পোর্ট থানার সামনে প্রচুর উৎসুক মানুষের ভিড় জমে। দিল্লি থেকে রওনা দিয়ে চার দিন লেগেছে ঘোড়াবাহী ট্রাক বেনাপোল বন্দর পৌঁছাতে। বেনাপোল বন্দর থেকে ঘোড়াগুলো বুঝে নিয়েছেন আমদানি কারকের প্রতিনিধি এনামুল হক।আমদানিককৃত ঘোড়া ছাড় কারক প্রতিষ্ঠান বেনাপোলের সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট মাধ্যম এন্টার প্রাইজের প্রতিনিধি সাজেদুর রহমান জানান,

ঘোড়া আমদানি করছেন বাংলাদেশ পুলিশ। রপ্তানীকারক ভারতের বিধাতা সাপ্লাইয়ার। ৬৫ হাজার ৪শ ডলার মুল্যে ৬টি ঘোড়া ভারত থেকে আমদানি করা হয়েছে। আমদানি শুল্ক পরিশোধ করে বেনাপোল থেকে ঘোড়াগুলো ছাড় করানোর পর তা ঢাকা রাজারবাগ পুলিশ লাইনস এ নেওয়া হবে বলে জানান তিনি। বেনাপোল কাস্টমস হাউসের সহকারী কমিশনার উত্তম চাকমা জানান, পুলিশের জন্য অমদানি করা ঘোড়াগুলো দ্রুত খালাসের জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশ ঘোড়াগুলো রক্ষণাবেক্ষণের জন্য তদারকি করছেন।বেনাপোল পোর্টথানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মামুন খান ঘোড়া আমদানির বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, আমদানিকৃত ঘোড়া দ্রুত খালাসের জন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে সব ধরনের সহযোগিতা সংশিষ্ট কর্তৃপক্ষকে করা হচ্ছে ।

শার্শা উপজেলা উপসহকারী প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা মাতম্বর মোস্তফা কামাল বলেন, বেনাপোল বন্দরে ঘোড়াগুলো প্রবেশের পর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়েছে। প্রাথমিক ভাবে সেগুলো সুস্থ্য মনে হওয়ায় ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে।-সময় নিউজ।