ফেলে যাওয়া দুই লাখ টাকা ফিরিয়ে দিয়ে প্রশংসায় ভাসছেন জয়নাল

সিএনজি চালিত অটোরিকশার সিটে ভুল করে দুই লাখ ৩০ হাজার টাকা ফেলে রেখে যান দুইযাত্রী। প্রবীণ অটোরিকশা চালক জয়নাল আবেদিন ওরফে জয়নাল পাগলা সেই টাকা পেয়ে যাত্রীকে খুজে বের করে ফিরিয়ে দিয়ে সততা ও মহত্বের অনন্য দৃষ্টা’ন্ত স্থাপন করলেন। এদিকে হারানো টাকা ফিরে পেয়ে ওই দুই যাত্রী খুশিতে সততার পুরস্কার হিসেবে জয়নালকে কিছু টাকা দিতে চাইলেও তিনি তা গ্রহণ করেনি।

বুধবার (৫ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে ময়মনসিংহ শহরের জুবলীঘাট এলাকায় ঘটনাটি ঘটে। জয়নাল আবেদীন ময়মনসিংহের গৌরীপুর পৌরসভার পশ্চিম দাপুনিয়া এলাকার বাসিন্দা। এ ঘটনায় প্রশংসায় ভাসছেন অটোরিকশা চালক জয়নাল আবেদিন। টাকা ফেরত পাওয়া যাত্রী গৌরীপুর পৌরসভার সেনেটারি ইন্সপেক্টর মো. শফিকুল ইসলাম জানান, মোটরসাইকেল কেনার উদ্দেশে তিনি অটোরিকশা করে বুধবার বিকেলে জুবলীঘাট এলাকায় মোটর সাইকেলের শো-রুমে যান।

গন্তব্যে পৌঁছে অটোরিকশা চালককে ভাড়া দিয়ে নেমে পড়েন তারা। মোটর সাইকেল শো রুমে গিয়ে মোটর সাইকেল কিনে টাকা পরিশোধের সময় টের পান সঙ্গে নিয়ে আসা ২ লাখ ৩০ হাজার টাকা নেই। এসময় তিনি দিশেহারা হয়ে পড়েন। তারা কিংকর্তব্যবিমুঢ় হয়ে শো রুমেই অবস্থান করেন। কিছুক্ষণ পর অটোচালক জয়নাল মোটরসাইকেলের শোরুমে এসে তাকে খুঁজে বের করেন। টাকাগুলো ফেরত দিয়ে বলেন, এ টাকাগুলো আপনারা অটোরিকশার সিটে ভুল করে ফেলে রেখে এসেছিলেন।

জয়নাল আবেদীন জানান, ওই দুই যাত্রীকে জুবলীঘাট এলাকায় নামিয়ে দেয়ার পর ব্রহ্মপুত্র নদের ব্রিজের কাছে আসতেই অটোরিকশার পেছনের সিটে তিনি টাকার বান্ডেল পড়ে থাকতে দেখেন। যাত্রীরা ভুল করে টাকাগুলো ফেলে রেখে গেছেন ঘটনাটি বুঝতে পেরে তিনি তাৎক্ষণিক জুবলীঘাট এলাকায় আসেন যাত্রীর খুঁজে। সেখানে মোটরসাইকেলের শো-রুমে দুই যাত্রীকে খুঁজে পেয়ে সিটে ফেলে রাখা টাকা ফিরিয়ে দেন।

অটোরিকশার যাত্রী গৌরীপুর পৌরসভার লাইসেন্স পরিদর্শক আতাউর রহমান জানান, জয়নাল দীর্ঘদিন ধরে অটোরিকশা চালিয়ে স্ত্রী ও চার কন্যা সন্তান নিয়ে অতিক’ষ্টে জীবিকা নির্বাহ করে আসছেন। তার জীবদ্দশায় সততা ও নীতির প্রশ্নে কোনদিন মাথানত করেনি।তিনি আরো বলেন, টাকাগুলো তিনি ইচ্ছে করলেই আত্মসাৎ করতে পারতেন। সেই টাকা ফেরত দিয়ে তিনি বর্তমান যুগে সততা ও মহত্বের এক অনুকরণীয় দৃষ্টা’ন্ত দেখিয়েছেন।

টাকা পাওয়ার পর জয়নালকে তারা কিছু আর্থিক সাহায্য করতে চেয়েছিলেন কিন্তু তিনি তা গ্রহণ করেননি বলে জানান আতাউর রহমান।

সূত্র: সময় নিউজ।