উৎসবের আমেজ বিসিবিতে, যে আয়োজন থাকছে বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের জন্য

ভারতকে হারিয়ে বিশ্বকাপ জিতে ইতিহাস সৃষ্টি করেছে অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দল। প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ ক্রিকেটে বিশ্বকাপের দেখা পায়। তাই যুবাদের বরণ করতে আয়োজনের কমতি রাখছে না বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। সাজসাজ রব করছে বিসিবিতেও। শেরে বাংলা স্টেডিয়ামের দুই নাম্বার গেট দিয়ে ঢুকতেই চোখে পড়ে বিশাল আকবর আলীদের ছবি খচিত বিশাল ব্যানার।

ওয়ার্লড চ্যাম্পিইয়ন্স লেখা এই ব্যানারে দেখা যাচ্ছে আকবর আলীদের ট্রফি হাতে উল্লাসের মূহূর্ত। আজ মঙ্গলবার সকালে এই ব্যানারগুলো টানানো হয়। একটি বিশাল বড় ব্যানার ছাড়া ছোট-ছোট তিনটি ব্যনার আছে। তার মধ্যে একটিতে আবার নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলতে যাওয়া দলকে শুভকামনা জানানো হয়েছে। মরিচ বাতিতে সাজানো হয়েছে স্টেডিয়ামের প্রধান ফটকের দেয়ালে।

যুবাদের এমন অর্জনে পুরো দেশই ভাসছে আনন্দে-উল্লাসে। ছেলেদের এমন সাফল্যে সাজসাজ রব করছে দেশের ক্রিকেটের আঁতুড়ে ঘর মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম।দেশের ক্রিকেটের এমন সাফল্যে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড আরও আয়োজন করছে নানা আয়োজনের। অপেক্ষা শুধু আকবর আলীদের আগমনের। আগামীকাল বিকেলে ৪টা ৫৫ মিনিটে দেশে পৌঁছাবেন আকবর আলীরা। বিমান বন্দরের তাদের বিশাল অভ্যার্থনা দেওয়া হবে বলে জানিয়েন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

বিমানবন্দরে বিসিবি সভাপতি ও পরিচালকরাসহ উপস্থিত থেকে যুবাদের বরণ করবেন ফুল দিয়ে। ওখানে জনসমাগমও হবে। এরপর তাদেরকে বিমানবন্দর থেকে সরাসরি মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে নিয়ে আসা হবে। মিরপুর আসার পর তাদেরকে নিয়ে কেক কাটা হবে। কেক কাটার পর যুবাদের নিয়ে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হবেন নাজমুল হাসান পাপন। রাতে ডিনারের ব্যবস্থা থাকবে।

এরপর যাদের বাসা ঢাকাতে তারা রাতেই চলে যাবেন আর বাকিরা বিসিবি একাডেমিতে অবস্থানের পর পরদিন সকালে গ্রামের বাড়িতে ফিরবেন। আয়োজন নিয়ে বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘আপনারা জানেন যে অনূর্ধ্ব-১৯ দল আগামীকাল সকালে আসার কথা ছিল, এটা পরিবর্তন হয়ে এখন আগামীকাল বিকেল ৫ টারর দিকে এসে পৌঁছাবে।

সো ওইভাবেই পরিকল্পনা করা হচ্ছে যেহেতু অনেকদিন ধরে ছেলেগুলো দেশের বাইরে ছিল তো সবকিছু বিবেচনা করে আমরা যতটুকু সম্ভব স্বল্প সময়ের মধ্যে কিছু অ্যারেঞ্জমেন্ট রাখছি। বিমানবন্দরে অভ্যর্থনা জানিয়ে বোর্ডে নিয়ে আসার জন্য এবং যত তাড়াতাড়ি সম্ভব তাদের পরিবারের কাছে পাঠানো হবে।’

‘এখানেই শেষ নয়। অরা ফিরলে গনসংবর্ধনা দেওয়া হবে। সরকারের সঙ্গে আলোচনা করেই এই ব্যবস্থা হবে’, যোগ করেন নিজামউদ্দিন চৌধুরী।-আমাদের সময়।