ভালোবাসা দিবসে রুবেলের প্রেমময় পোস্ট

হ্যাপি ইস্যুকে পিছনে ফেলে, সুন্দরী স্ত্রীকে নিয়ে এখন রীতিমত সুখেই সংসার করছেন জাতীয় দলের ক্রিকেটার রুবেল হোসাইন। ২০১৪ সালে নারী নির্যা’তন মা’মলায় ডানহাতি এই পেসারের বি’রুদ্ধে ধর্ষ’ণের অভি’যোগ করেন এক সময়ের চলচ্চিত্র অভিনেত্রী নাজনীন আক্তার হ্যাপী। তবে এই বিষয়ে কোনও তথ্য-প্রমাণ পায়নি পুলিশ।

এরপরই রুবেলের জীবনে দোলা দিয়ে চলে আসেন ইসরাত জাহান দোলা। যাকে নিয়ে ভারতীয় মিডিয়াসহ বাংলাদেশের প্রচারমাধ্যমেও ফলাও করে সংবাদ পরিবেশন করা হয়। ওই প্রতিবেদনগুলোতে বলা হয়, ‘অতীতের বান্ধবীর অভি’যোগে জে’লও খাটতে হয়েছে রুবেলকে, তবে স্ত্রীর সঙ্গে এখন চুটিয়ে প্রেম করছেন তিনি।’

রুবেলের জীবনে নাজনিন আখতার হ্যাপি এখন অতীত। সব ভুলে নতুন করে গড়ে তুলেছেন নিজেকে। বাংলাদেশের ক্রিকেট তারকা রুবেল হোসাইন এখন অনেকটাই পরিণত। নতুন স্ত্রীকে নিয়ে সুখে গার্হ’স্থ্য জীবন তার।

২০১৬ সালে বাগেরহাটের মুনিগঞ্জের মেয়ে ইসরাত জাহান দোলাকে বিয়ে করেন রুবেল হোসাইন। অনেকটা নীরবেই বিয়ে করেন রুবেল। তখন বিয়ের খবরটা ছিলো গোপন। এর দেড় বছর পর ফেসবুকে স্ত্রী দোলার ছবিসহ জানিয়েছিলেন বিয়ের খবর।

পরে ২০১৯ সালের ১ সেপ্টেম্বর ছেলে সন্তানের বাবা হন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের এই পেসার। ওইদিন দুপুর দুইটার দিকে রুবেল নিজেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তার ভেরিফায়েড পেজে সে তথ্য নিশ্চিত করেন। স্ত্রী ইসরাত জাহান দোলা আর একমাত্র সন্তানকে নিয়ে সুখেই আছেন তিনি। তবে এগুলো সবই পুরনো খবর।

নতুন খবর হচ্ছে- আজ বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে সুন্দরী স্ত্রী ইসরাত জাহান দোলার সঙ্গে নিজের একটা যুগলবন্দী ছবি পোস্ট করে ভালোবাসা দিবসের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন রুবেল।

এদিন রাত ৮টা ৪৯ মিনিটে নিজের ভারিফায়েড ফেসবুক পেজে পোস্ট করা তিনি ওই ছবির ক্যাপশনে লেখেন, ‘তুমিই আমার জীবন, তুমিই আমার উৎসাহ, তুমিই আমার সবকিছু, আমি তোমাকে ভালোবাসি।’ পোস্টটি দোলা হোসাইনকে ট্যাগও করেন রুবেল। যাতে ঢল নেমেছে ভক্ত-সমর্থকদের শুভেচ্ছা বানীতে। এখন পর্যন্ত ওই পোষ্টে ২১ হাজার লাইক, ৭শ কমেন্ট ও ১৩বার শেয়ার করা হয়েছে।

পেসার রুবেল হোসাইন ২০০৯ সাল থেকে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের হয়ে খেলছেন। এখন পর্যন্ত ২৭টি টেস্ট, ১০১টি ওয়ানডে এবং ২৭টি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন তিনি। এই তিন ফর্মেটে যথাক্রমে (৩৬, ১২৬ ও ২৮টি করে উইকেট লাভ করেন।

পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথম টেস্টের দলেও ছিলেন বাগেরহাটের এই পেসার। যেখানে ১১৩ রানের বিনিময়ে তিনটি উইকেট দখল করেন রুবেল। পাকিস্তান থেকে ফিরে বর্তমানে তিনি জাতীয় দলের অন্যান্য সদস্যদের মতই ছুটিতে কাটাচ্ছেন।