বিশ্বাস করো, আমার চোখে তুমি বিশ্বকাপের অঘোষিত নায়ক : মাশরাফি

ফাইল ছবি

অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপ জয়ী বাংলাদেশ যুবা ক্রিকেট দল। প্রথমে বিমানবন্দরে এবং পরে মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দেওয়া হয় সংবর্ধনা। এসময় অধিনায়ক আকবর আলীকে সাথে নিয়ে কেক কেটেছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। দলের সাথে এসময় উপস্থিত ছিল অনূর্ধ্ব ১৯ দলের কোচিং স্টাফ।

গত কয়েকদিনের মধ্যে বাংলাদেশের ১৬ কোটি মানুষের হৃদয়ে স্থান করে নিয়েছেন এই আকবার আলীরা। মানুষের হৃদয়ে স্থান করে নেবেইবা না কেন? এই আকবার আলীররাই তো বাংলাদেশ গর্বের বিজয়টি প্রতিপক্ষ ভারতের কাছ থেকে ছিনিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছে। আর এই তরুন ক্রিকেটারদের অন্যতম একজন হলেন পেস অলরাউন্ডার অভিষেক দাস। তার উপর ইনি এবার নড়াইল এক্সপ্রেস হিসাবে পরিচিত মাশরাফি বিন মুর্তজা্র শহর থেকে এসেছেন।

বিশ্বকাপের ফাইনালে একাদশে সুযোগ পেয়েই বাজিমাত করা অভিষেককে নিয়ে মাশরাফি স্বপ্ন দেখছেন বড় কিছুর। এই বিশ্বকাপজয়ী ক্রিকেটারদের নিয়ে নিজের ব্যক্তিগত ফেসবুক অ্যাকাউন্টে মাশরাফি লিখেন, ‘এই আকবর, তামিম, ইমন, রকিবুল, শরিফুল, অভিষেকদেরকে তৈরি করতে তাদের পরিবারকে অনেক ত্যাগ স্বীকার করতে হয়েছে। তারাও অনেক পরিশ্রম করেছে।’

মাশরাফির মতে, ‘অভিষেক দেশে ফিরেছে (বিশ্বকাপ জয় করে) বাংলাদেশের মানুষকে গর্ববোধ করাতে, নড়াইলের মানুষকে গর্ববোধ করাতে। তুহিন চাচা, সঞ্জীব বিশ্বাস সাজু এবং ইমরুল এবং যারা এই দিনটির স্বপ্ন বুনেছিল তাদের সবাইকে ধন্যবাদ। আমার চোখে তুমি বিশ্বকাপের অঘোষিত নায়ক। বিশ্বাস করো, আমি এটা মন থেকেই বলছি।’

এদিকে, ইতিমধ্যেই বিশ্ব ক্রিকেটে আলোড়ন সৃষ্টি করেছে বাংলাদেশ যুব টাইগারদের ট্রেইনার রিচার্ড স্টোনিয়ার। খোদ সংবাদ সম্মেলনে তার প্রশংসা করেছেন বিসিবির সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে সেলিব্রেশন শেষে স্টেন্থ এন্ড কন্ডিশনিং কোচ রিচার্ড স্টোনিয়ার সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমি ব্রিটিশ, কিন্তু আমি এখন বাংলাদেশি। এই ছেলেরাই ভবিষ্যৎ। আমরা এখন দুই নম্বর না, আমরা বিশ্বের ১ নম্বর দল। ঠিকাছে? (হাঁসি)’

বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেটের দলের সাফল্য অন্য যেকোনো অর্জনের চেয়ে সর্বোচ্চ। বাংলাদেশের ক্রিকেটে ইতিহাসে এটিই সেরা। যুবাদের এই প্রাপ্তির সঙ্গে কোনো কিছুর তুলনা হয় না। বিসিবি কার্যলয়ে সাংবাদিকদের এমনটাই জানিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। এছাড়াও, যুবাদের নিয়ে বিভিন্ন পরিকল্পনার কথা জানান তিনি।

পাপন বলেন, বিশ্বকাপ বিশ্বকাপ। এর উপরে কিছু হতে পারে না। এসিসির জন্য সবচেয়ে বড় টুর্নামেন্ট এশিয়া কাপ, আইসিসির জন্য বিশ্বকাপ। তিনি বলেন, ক্রিকেটে বিশ্বকাপের উপরে কিছু হয় না। এই চ্যাম্পিয়ন আগামী দুই বছর থাকবে বাংলাদেশ। এই সময়টাতে আমরা গর্বে থাকতে পারব, এটাই বড় কথা।