মুমিনের জন্য ফজরের নামাজের গুরুত্ব অনেক বেশি

নামাজ হল ইস’লাম ধ’র্মের প্রধান উপাসনাকর্ম। প্রতিদিন ৫ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করা প্রত্যেক মু’সলিমের জন্য ফরজ। ঈ’মান বা বিশ্বা’সের পর নামাজই ইস’লামের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ স্তম্ভ। একজন মু’সলমান হিসেবে আমাদের প্রত্যকেরই নামাজ আদায় করা উচিৎ। তাতে আসুক যত বাধা-বিপত্তি।

মুমিনের জন্য ফজরের নামাজের গুরুত্ব অনেক বেশি। তার দিনের শুভক্ষণ শুরু হয় ফজরের নামাজের মাধ্যমে। যে ব্যক্তি যথা সময়ে ফজরের নামাজ আদায় করে দিনের কাজ আরম্ভ করে; ওই ব্যক্তির পরবর্তী ইবাদতগুলো যথাযথ আদায় করা সহ’জ হয়।অনেকেই

আছে যারা ফজরের নামাজ আদায় করতে পারেন না। আজানের পরও অনেকে ঘুম থেকে উঠতে পারে না। আবার অনেকে অলসতা বা অন্য কোনো কারণে ঘুম থেকে উঠতে চায় না। এবার আসুন জেনে নিই, ফজরের নামাজের জন্য ঘুম থেকে উঠার উপায়…

১। রাতে ঘুমানোর সময় বিসমিল্লাহর সঙ্গে অজু করে দুই বা ৪ রাকাআত নামাজ পড়ে ঘুমানো এবং ফজরের নামাজ পড়ার ব্যাপারে এভাবে দৃঢ় ইচ্ছা পোষণ করা যে, আমি অবশ্যই ফজরের নামাজ যথা সময়ে আদায় করব।

২। রাত গভীর না করে তাড়াতাড়ি ঘুমাতে যাওয়া। বিনা কারণে দেরিতে ঘুমানোর ফলেই যথা সময়ে ফজর আদায় সম্ভব হয় না।

৩। ফজরের নামাজ যথা সময়ে আদায় করতে মোবাইল বা ঘড়িতে অ্যালার্ম দিয়ে ঘুমাতে যাওয়া। যাতে মোবাইল বা ঘড়ির অ্যালার্মের শব্দে ফজরের সময় ঘুম ভে’ঙ্গে যায়।

৪। রাতে ঘুমানোর সময় মৃ’ত্যুর কথা স্ম’রণ করা। এ চেতনা হৃদয়ে জাগ্রত করা যে, নামাজ না পড়া অবস্থায় যদি মৃ’ত্যু হয় তবে পরিণতি কী’ হবে? এ অনুভূতি হৃদয়ে পোষণ করা।

আল্লাহ তাআলা মু’সলিম উম্মাহকে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ার তাওফিক দান করুন। আমিন।