মৃ’ত্যুপুরী ইতালিতে আরও ৭৪৩ জনের মৃ’ত্যু

ফাইল ছবি

ইউরোপে হু হু বাড়ছে করোনা ভাইরা’সের থাবায় আ’ক্রান্ত ও মৃ’তের সংখ্যা। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ভুক্তভোগী ইতালি। যেখানে দীর্ঘ হচ্ছে স্বজনহারাদের সংখ্যা। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো বলছে, দেশটিতে ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে মা’রা গেছেন ৭৪৩ জন। যা একদিনে মৃ’তের ঘটনায় তৃতীয় সর্বোচ্চ। এ নিয়ে রাজধানী রোমসহ প্রা’ণহানির সংখ্যা বেড়ে ৬ হাজার ৮২০ জনে পৌঁছেছে।

অপরদিকে, স্থবির হয়ে যাওয়া দেশটিতে থেমে নেই আক্রা’ন্তের মিছিলও। প্রতিনিয়ত প্রা’ণহানির তুলনায় আক্রা’ন্ত হওয়ার হার কয়েকগুণ। তারই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবারও বেড়েছে সংক্র’মিতের সংখ্যা। চীনের বাহিরে সর্বোচ্চ মৃ’ত্যুর দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৫ হাজার ২৪৯ জন আক্রা’ন্ত হয়েছেন। আর এ নিয়ে ইতালিতে মোট আ’ক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৬৯ হাজার ১৭৬ জনে দাঁড়িয়েছে। যেখানে একেবারে আ’শঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছেন প্রায় সাড়ে ৩ হাজার মানুষ।

আ’ক্রান্ত ও প্রা’ণহানির এসব ঘটনা সবচেয়ে বেশি ঘটেছে দেশটির লম্বার্ডিয়া অঞ্চলে। এ পর্যন্ত ইতালিতে ২০ জন চিকিৎসকের মৃ’ত্যু হয়েছে করোনায় আক্রা’ন্ত হয়ে। কোনও প্রতিষে’ধক কাজ না করায় আক্রা’ন্তের তুলনায় সুস্থ হওয়ার সংখ্যা নিতান্তই কম। এখন পর্যন্ত সেখানে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৮ হাজার ৩২৬ জন।

ইতালির প্রধানমন্ত্রী জুসেপ্পে কন্তের কণ্ঠে তাই হতাশা ও ভেঙে পড়ার সুর। টুইটারে তিনি বলেছেন, আমরা সমস্ত নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেছি। আমরা শারী’রিক ও মান’সিকভাবে মা’রা গেছি। আর কী করতে হবে তা আমরা জানি না। পৃথিবীর সমস্ত সমাধান শেষ হয়ে গেছে। এখন একমাত্র সমাধান আকাশের কাছে। তার এ বক্তব্য বিশ্ববাসীকে নাড়া দিয়েছে।

প্রসঙ্গত, চীন থেকে শুরু হওয়া ভাইরা’সটিতে বিশ্বজুড়ে নতুন করে প্রা’ণ গেছে ২ হাজার ৩৭৮ জন। যেখানে ইতালির পরে সর্বোচ্চ প্রা’ণহানি ইউরোপের আরেক দেশ স্পেনে (৬৮০)। ফলে এই নিয়ে মৃ’তের সংখ্যা ১৮ হাজার ৮৯২ জনে পৌঁছেছে। আ’ক্রান্ত ৪ লাখ ২২ হাজার ৬১৪ জন।

সূত্র: একুশে টেলিভিশন