কাজ না করায় চীনে তৈরি মেডিকেল সামগ্রী প্র’ত্যাখ্যান করছে কয়েকটি দেশ

করোনাভাই’রাসের মহামা’রি মোকাবেলায় চীনের তৈরি কিছু মেডিকেল সামগ্রী ইউরোপের বেশ কয়েকটি দেশের সরকার প্র’ত্যাখ্যান করেছে। স্পেন, তুরস্ক ও নেদারল্যান্ডসে কর্তৃপক্ষ বলছে, চীনের বিভিন্ন কোম্পানি থেকে আমদানি করা এরকম লাখ লাখ টেস্টিং কিট ও মেডিকেল মাস্ক মান’সম্মত নয় কিম্বা ত্রুটিপূর্ণ। ইউরোপে ইতোমধ্যেই কয়েক লাখ মানুষ করোনাভাই’রাসে আক্রা’ন্ত হয়েছেন। মহামা’রি শুরু হওয়ার পর থেকে শুধু ইতালিতেই মা’রা গেছে ১০ হাজারেরও বেশি মানুষ। আর স্পেনে মৃ’ত্যু হয়েছে সাড়ে সাত হাজারের মতো।

গত বছরের ডিসেম্বর মাসে এই ভাই’রাসটি সংক্র’মণের খবর আসতে থাকে চীনের উহান শহর থেকে। এর পরেই সরকার ওই শহরে লোকজনের চলাচলের ওপর কঠোর বিধিনি’ষেধ আরোপ করে। তারপরেও ভাই’রাসটি প্রথমে চীনের অন্যান্য শহর এবং বিশ্বের একের পর এক দেশে ছড়িয়ে পড়তে শুরু করে। স্পেনে ৮৫ হাজার মানুষ এই ভাই’রাসে আক্রা’ন্ত হয়েছেন এবং এই সংখ্যা চীনকেও ছাড়িয়ে গেছে।

চীনা সামগ্রী নিয়ে সমস্যা কোথায়

হল্যান্ডের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় শনিবার ঘোষণা করেছে যে তারা বাজার থেকে ছয় লাখ ফেস মাস্ক প্রত্যা’হার করে নিচ্ছে। চীনে এসব মাস্ক তৈরি করা হয়েছে এবং হল্যান্ডে পাঠানো হয়েছে ২১শে মার্চ। এসব মাস্ক ইতোমধ্যেই হাসপাতালে কর্মরত ডাক্তার ও নার্সদের মতো ফ্রন্ট-লাইন কর্মীদের মধ্যে বিতরণ করা হয়েছিল। ডাচ কর্মকর্তারা বলছেন, মাস্কগুলো ঠিক মতো মুখে লাগে না। এছাড়াও মাস্কের মধ্যে যে ফিল্টার লাগানো সেটাও ঠিক মতো কাজ করছে না।

তারা বলছেন, এসব সামগ্রী মানসম্পন্ন বলে কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে সার্টিফিকেটও দেওয়া হয়েছিল। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “মাস্কের আরো যেসব চালান আসার কথা ছিল সেগুলো সাথে সাথে থামানো হয়েছে। বাকি মাস্কগুলো বিতরণও করা হয়নি।” “আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি যে এসব চালানের সামগ্রী ব্যবহার করা হবে না।” স্পেনের সরকার বলছে, চীনের একটি কোম্পানি থেকে আনা টেস্টিং কিট নিয়ে তারাও একই রকমের সমস্যার মধ্যে পড়েছে।

স্পেন সরকার বলছে, ভাই’রাসটি মোকাবেলায় চীন থেকে তারা লাখ লাখ টেস্টিং কিট আমদানি করেছিল। কিন্তু কর্মকর্তারা কয়েক দিন পরেই দেখতে পান যে এসব কিট দিয়ে কারো শরীরের করোনাভাই’রাস থাকলে সেটা নিখুঁতভাবে নির্ণয় করা যাচ্ছে না। চীনে স্প্যানিশ দূতাবাস টুইট করে জানিয়েছে যে চীনের যে কোম্পানি এসব কিট রপ্তানি করেছে তার নাম শেনজেন বায়োইজি বায়োটেকনোলজি। স্পেন বলছে, মেডিকেল সামগ্রী বিক্রি করার জন্যে এই কোম্পানিটির কোন সরকারি লাইসেন্সও নেই।

চীন সরকার ও আলিবাবা নির্দোষ

তবে মহা’মারি মোকাবেলায় চীন সরকার ও অনলাইন সুপারমার্কেট আলিবাবা স্পেনে যেসব মেডিকেল সামগ্রী পাঠিয়েছে সেগুলো শেনজেন বায়োইজির রপ্তানি করা সামগ্রীর মধ্যে পড়ে না বলে স্প্যানিশ দূতাবাস পরিষ্কার করে দিয়েছে। তুরস্কও ঘোষণা করেছে যে চীনের বিভিন্ন কোম্পানি থেকে তারা যেসব টেস্টিং কিট কিনেছিল সেগুলো ঠিক মতো কাজ করে না। তবে তারা এও বলেছে যে তার মধ্যে সাড়ে তিন হাজার কিট ভালোভাবেই কাজ করেছে।

সারা বিশ্বে চীন তার প্রভাব বাড়াতে করোনাভাই’রাস মহা’মারিকে ব্যবহার করতে পারে সমালোচকদের এধরনের হুঁশিয়ারির মধ্যেই ত্রুটিপূর্ণ এসব যন্ত্রপা’তির ব্যাপারে অভিযোগ উঠলো।

সূত্র: বিবিসি বাংলা