অর্থ-সম্পদ কদিনের, মা’রা গেলেই শেষ : সাইফউদ্দিন

ফাইল ছবি

ম’রণব্যা’ধি করোনাভাই’রাসের কারণে স্থবির হয়ে আছে পুরো দুনিয়া। যার কারণে ঘর বন্দী জীবনযাপন করতে হচ্ছে মানুষদের। যেখানে উচ্চবিত্ত, মধ্যবিত্তরা সামলে নিলেও সমস্যায় পড়তে হচ্ছে দিনমজুর ও নিম্ন আয়ের মানুষদের। আর এমন সময়ে এগিয়ে এসেছে দেশের ক্রিকেটাররা। বাংলাদেশের ২৭ ক্রিকেটার মিলে তাদের এক মাসের বেতনের অর্ধেক প্রায় ৩১ লাখ টাকা করোনা ইস্যুতে দান করেন। যেখানে ২৭ ক্রিকেটারের মধ্যে রয়েছে অলরাউন্ডার সাইফউদ্দিনও। নিজের বেতনের অর্ধেক ৭৫ হাজার টাকা সহায়তা করেন ফেনীর এই ক্রিকেটার।

তার মতে কদিনের জন্যে এই অর্থ-সম্পদ। মা’রা গেলেতো কিছুই নিয়ে যেতে পারবো না। আর অসহায় মানুষদের উপকার আসলে, এটা নিজের কাছেও ভালো লাগে। সেই সাথে সবাইকে এ সময়ে অসহায়দের সাহায্য করতে বললেন তিনি। ২৬ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার ‘এনটিভি’ কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন;“আসলে অর্থ-সম্পদ আর কদিনেরই, মা’রা গেলে তো কিছুই নিয়ে যাব না। তাই নিজের অর্থ যদি ভালো কাজে বা কারো উপকারে লাগাতে পারি, এটা নিজের কাছেই স্বস্তিদায়ক। শুধু তহবিলে নয়, চেষ্টা করছি নিজের এলাকাতেও সাহায্য করার। ”

“যেখানে যে যে ফাউন্ডেশন দেখছি, সেখানেই কিছু না কিছু দেওয়ার চেষ্টা করছি। নিজের আত্মীয়স্বজনেরও পাশে থাকার চেষ্টা করছি। নিজের জায়গা থেকে যতটুকু করা যায়, চেষ্টা করছি। সরকার আমাদের যেসব পরামর্শ দিয়েছে, সেসব কথা আত্মীয়স্বজনকেও বলি। এখন বলে তো আর কিছু করতে পারব না। সবাই যদি সচেতন না হয়। এখন নিজেদের ঘরে থাকাটাই মুখ্য।” সবাইকে এগিয়ে আসতে আহ্বান করে সাইফ বলেন;“আমি আশা করি, আমাদের দেখে সবাই যার যার জায়গা থেকে এগিয়ে আসবে।

আমার এলাকাতেই অনেক উঁচু পরিবার বা চেয়ারম্যান-মেম্বাররা দুস্থদের সাহায্য করছেন। অনেকেই যে যেভাবে পারছেন, সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসছেন।” “অনেকেই সাহায্য করার জন্য আগ্রহী হচ্ছেন। এটা আমার নিজের কাছেই খুব ভালো লাগছে। সবার উদ্দেশে বলব, আপনারা সবাই এ দু’র্যোগে অসহায়দের পাশে দাঁড়ান। শুধু করোনাভাই’রাস নয়, সবাই একসঙ্গে কাজ করলে যেকোনো দু’র্যোগের বি’রুদ্ধেই ল’ড়াই করা সম্ভব।