করোনাতেও তেমন একটা ক্ষতির মুখে পড়বে না বিসিবি

করোনা ভাই’রাসের কারণে বিশ্বের বড় বড় ক্রীড়া আসর বন্ধ হয়ে গেছে। বড় ধরনের লোকসানের শ’ঙ্কায় পড়তে পারে বিশ্বের প্রভাবশালী ক্রিকেট বোর্ডগুলো। এই বছর আইপিএল যদি অনুষ্ঠিত না হয় তবে বিসিসিআইয়ের ক্ষতি হতে পারে ১০ হাজার কোটি রুপি। আর যদি এই মৌসুমের ক্রিকেট মাঠে না গড়ায় তবে ইসিবির ক্ষতি হবে ৩০০ মিলিয়ন ইউরো। এদিক দিয়ে এখন পর্যন্ত কিছুটা যেন স্বস্তিতে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। করোনা ভাই’রাসের প্রভাবে খেলাধুলা বন্ধ হয়ে গেলেও অত বড় ক্ষতির ভয় নেই বিসিবির।

বিসিবি সূত্র থেকে জানা যায়, টাইগারদের পাকিস্তান, আয়ারল্যান্ড সফরের কথা ছিল। তবে সেগুলো থেকে যা আয় হতো সেক্ষেত্রে বিসিবির কোন লাভ হতো না। সেদিক থেকে কোন ক্ষতির মুখে পড়তে হবে না বিসিবিকে। বিসিবির স্বস্তিতে থাকা মূলত করোনা ভাই’রাসের আগেই ঘরোয়া ক্রিকেটের কিছু খেলা শেষ হয়ে যাওয়াতে। একই কারণে স্বস্তিতে আছে অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা ও পাকিস্তানও। বিসিবির বড় অঙ্কের রাজস্ব আসে বিপিএল থেকে। সেটি এবার ভালোভাবেই শেষ হয়েছে। বাংলাদেশের ক্রিকেটে এখন পর্যন্ত করোনার বড় প্রভাব বলতে পাকিস্তান ও আয়ারল্যান্ড সফর এবং প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগ স্থগিত হয়ে যাওয়া। কিন্তু এসবে বিসিবির আর্থিক ক্ষতি খুব বেশি হবে না।

তবে দুশ্চিন্তা যে একেবারেই নেই, তা নয়। বিসিবির রাজস্বের ৫০ ভাগই আসে আইসিসির টুর্নামেন্ট থেকে। আগামী অক্টোবরে অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠেয় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ স্থগিত হলে বাংলাদেশের ক্রিকেটের কোষাগারে বড় ধাক্কাই লাগার কথা। সেপ্টেম্বরে অনুষ্ঠেয় টি-টোয়েন্টি এশিয়া কাপও বিসিবির জন্য লাভজনক। বিসিবি এখন সেসবের দিকেই তাকিয়ে।