কাশ্মীর সীমান্তে সংঘ’র্ষে ৫ ভারতীয় সেনা নি’হত

ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীর সীমান্তে অনুপ্রবেশকারীদের সঙ্গে সংঘ’র্ষে ভারতীয় সেনাবাহিনীর অন্তত পাঁচ সদস্য নি’হত হয়েছেন। দেশটির সেনাবাহিনীর একজন মুখপাত্র বলেছেন, রোববার কাশ্মীর সীমান্তের এই সংঘ’র্ষে পাঁচ অনুপ্রবেশকারী মা’রা গেছে। এক বিবৃতিতে ভারতীয় সেনাবাহিনীর কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট কর্নেল রাজেশ কৈলা বলেছেন, অনুপ্রবেশকারী সন্ত্রা’সী’রা নিয়ন্ত্রণ রেখা পেরিয়ে ভারত অধিকৃত কাশ্মীরে প্রবেশের চেষ্টা করেছিল। এ সময় ভারতীয় সেনাবাহিনীর সদস্যদের সঙ্গে সং’ঘর্ষ শুরু হলে পাঁচ অনুপ্রবেশকারী নিহত হয়।

সংঘ’র্ষে সেনাবাহিনীর পাঁচ সদস্যও মারা গেছেন বলে জানান এই সেনা কর্মকর্তা। সাম্প্রতিক সময়ে কাশ্মীর সীমান্তে বড় ধরনের সংঘ’র্ষের ঘটনা এটি। যদিও দুই দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনী প্রায়ই সংঘ’র্ষে লি’প্ত হয়। এদিকে, অধিকৃত কাশ্মীরে যে মানবিক স’ঙ্কট তৈরি হয়েছে; তা থেকে বিশ্ববাসীর নজর অন্যদিকে ফেরাতে নয়াদিল্লি সীমান্ত সংঘা’তে জড়িয়েছে বলে দাবি করেছে পাকিস্তান সেনাবাহিনী। বিতর্কিত জম্মু-কাশ্মীরে দুই অংশের নিয়ন্ত্র’ণ রয়েছে উভয় দেশের। দীর্ঘদিনের বিত’র্কিত উভয় অংশকে নিজেদের বলে দাবি করে আসছে পাকিস্তান এবং ভারত। কাশ্মীরের ছোট একটি অংশের মালিকানা রয়েছে চীনের।

১৯৪৭ সালে বিভক্ত হওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত এ দুই দেশের মাঝে অন্তত চারবার যু’দ্ধ হয়েছে; যার তিনটিই বিত’র্কিত কাশ্মীর ঘিরে। কাশ্মীরের বিচ্ছিন্নতাবাদী কিছু গোষ্ঠী স্বাধীনতার দাবিতে ভারতীয় শাসনের বিরু’দ্ধে দীর্ঘদিন ধরে লড়াই চালিয়ে আসছে। তবে এই গোষ্ঠীগুলোর অনেকেই বিভিন্ন সময়ে কাশ্মীরকে পাকিস্তানের সঙ্গে একীভূত করারও দাবি তুলেছে। গত বছরের আগস্টে অধিকৃত কাশ্মীরের অধিক-স্বায়ত্তশাসন সং’ক্রান্ত ভারতীয় সংবিধানের বিশেষ অনুচ্ছেদ বাতিল করে দেয় দেশটির পার্লামেন্টের উভয় কক্ষ।

এ নিয়ে দুই দেশের মাঝে ব্যাপক উ’ত্তেজনা তৈরি হয়। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে অংশ নিয়ে কাশ্মীর ইস্যুতে প্রতিবেশি দুই দেশের মাঝে পারমাণবিক যু’দ্ধ শুরু হতে পারে বলে সতর্ক করে দেন।

সূত্র : এনডিটিভি, আনাদোলু।