জীবন থামলেও করোনায় থেমে নেই ভালোবাসা, ছবি ভাই’রাল

বিশ্বজুড়ে মৃ’ত্যুমিছিলের ভিড়ে ভালোবাসা মাখানো একটি দৃশ্য মুহূর্তেই মন ভালো করে দিতে পারে। সম্প্রতি একজন করোনা রোগীর সঙ্গে ইরানের এক স্বা’স্থ্যকর্মীর এমনই একটি ছবি সামাজিক মাধ্যমে আলোড়ন সৃষ্টি করেছে। জীবনের কঠিন মুহূর্তেও যে ভালোবাসা ও মানবিকতার গল্প তৈরি করা যায়, তা বারবার দেখাচ্ছেন চিকিৎসক-স্বা’স্থ্যকর্মীরা। অ্যালঝাই’মার্স আক্রা’ন্ত এক বয়স্ক নারী করোনা আক্রা’ন্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। আর সেখানেই মেঝেতে বসে নিজের কোলে ওই নারীকে শুইয়ে ঘুম পাড়ানোর চেষ্টা করছেন এক পুরুষ নার্স। যেন মাকে ঘুম পাড়াচ্ছেন ছেলে।

জানা গেছে, মাম্মা কোবরা নামের ওই নারী সব ভুলে যান। চিনতে পারেন না কাছের মানুষকেও। এই পরিস্থিতিতে করোনার তা’ণ্ডব থেকেও রেহাই পাননি তিনি। তাকে ইমাম খোমেইনি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এই হাসপাতালে অনেকদিন ধরেই মানুষের সেবা করে চলেছেন স্বাস্থ্যকর্মী জাভেদ। সেখানেই তার সঙ্গে আলাপ হয় মাম্মা কোবরার। হঠাৎই শনিবার রাতে ওই বৃদ্ধা সব ভুলে যান। হাসপাতালকেই নিজের বাড়ি ভাবতে শুরু করেন। আর জাভেদকে নিজের ছেলে।

হাসপাতালের বাকি চিকিৎসক, নার্সরা যখন ওই নারীকে নির্দিষ্ট বিছানায় শুতে যাওয়ার কথা বলেন, তাতে রাজি হননি তিনি। তখন এগিয়ে আসেন জাভেদ। মেঝেতে বসে নিজের কোলে তিনি টেনে নেন মাম্মাকে। সেখানে শুয়ে নিশ্চিন্তে ঘুমিয়েও পড়েন তিনি। এই মানবিক ছবিটিই এখন সামাজিক মাধ্যমে ঘুরছে। তবে জাভেদ বলছেন, তিনি তো আমার মায়ের মতোই। আমার মায়ের এমন হলে আমি যা করতাম, তার ক্ষেত্রেও তাই করেছি।-ডেইলি বাংলাদেশ