১১৬ বছর বয়সেও করোনার ভয় নেই তার

ফ্র্যাডি ব্লোম। দক্ষিণ আফ্রিকার এই নাগরিক গতকাল শুক্রবার পালন করেছেন তার ১১৬ তম জন্মদিন। এই বয়সেও করোনা ভাইরাসকে ভয় পান না তিনি। বলা হচ্ছে, বর্তমান বিশ্বের অন্যতম প্রবীণ দক্ষিণ আফ্রিকার এই ১১৬ বছর বয়সী বৃদ্ধ। প্রায় একশ বছর আগে স্প্যানিশ ফ্লুতে বোনকে হারিয়েছেন ফ্র্যাডি ব্লোম। তবে এবারের করোনা মহামারিতেও শঙ্কিত নন ব্লোম। বার্তা সংস্থা এএফপিকে দেয়া সাক্ষাতকারে ব্লোম বলেন, আমি ঈশ্বরের কৃপায় দীর্ঘ জীবন পেয়েছি।

১৯০৪ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার ইস্টার্ন কেপ প্রদেশের অ্যাডিলেইড নামক মফস্বল শহরে জন্ম নেন ফ্র্যাডি ব্লোম।গত মার্চে ব্লোম বিশ্বের অন্যতম প্রবীণ ব্যক্তি হিসেবে গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে নাম লেখান। জীবনের বেশিরভাগ সময় দক্ষিণ আফ্রিকার কেপ টাউনে কাটিয়েছেন ব্লোম। ১১৬ বছর বয়সে এসেও ধূমপান করতে পছন্দ করেন ফ্র্যাডি ব্লোম। আর তাই এই লকডাউনের দক্ষিণ আফ্রিকা সরকার সিগারেট বিক্রি বন্ধ করে দেয়ায় বিরক্তি প্রকাশ করেছেন ব্লোম।

ব্লোমের বিষয়ে তার সৎ নাতি জেসমিন টোয়েরিয়েন বলেন, সে আমাদের জন্য সব কিছু করেছেন। এখনো সে সকালে ঘুম থেকে জেগে উঠে এবং সাইকেল চালায়। জানা গেছে, প্রায় দুই বছর ধরে কোন রোগ হলে ডাক্তারের কাছে যান না ব্লোম। ৫০ বছরের দাম্পত্য জীবনে এখনো নিঃসন্তান ১১৬ বছর বয়সী ফ্র্যাডি ব্লোম।-ইত্তেফাক