করোনার মাঝেই প্রবাসী বাংলাদেশিদের যে সুখবর দিল ইতালি সরকার

মহামারি করোনা ভাইরাসে স্তব্ধ ইতালি। এর পরেও অনেক নাটকিয়তার মাঝে বুধবার( ১৩ মে) সন্ধ্যায় চূড়ান্ত ভাবে পাস হলো অবৈধ অধিবাসীদের বৈধকরণ অধ্যাদেশ। সহজ শর্তসাপেক্ষে বৈধকরণের এই প্রক্রিয়া ইতালিতে খুলছে দুইটি সুনির্দিষ্ট ক্যাটাগরিতে। প্রথমত যারা চলতি বছরের ৮ মার্চের আগে থেকে কৃষিকাজ কিংবা বৃদ্ধ-বৃদ্ধাদের সেবাযত্ন ও বাসাবাড়ির ডোমেস্টিক কাজে নিয়োজিত ছিলেন তাঁরাই বৈধ হবার সুযোগ পাবেন।

এক্ষেত্রে কাজের মালিকরা উপযুক্ত প্রমাণ সহ সরকারি ট্যাক্স ৪০০ ইউরো জমা দিয়ে ১ জুন থেকে ১৫ জুলাইয়ের মধ্যে আবেদন করতে পারবেন। কাজের কন্ট্রাক্ট যতদিনের করা হবে ততো সময়ের জন্যই সংশ্লিষ্ট শ্রমিককে স্টেট পারমিট (পেরমেসসো দি সোজ্জর্নো) দেয়া হবে।

এই অধ্যাদেশ মোতাবেক কাজের কন্ট্রাক্ট বা মালিক ছাড়াও আরেক বিশেষ ক্যাটাগরিতে অবৈধ অধিবাসীরা ইতালিতে এ যাত্রায় বৈধতার আবেদনপত্র জমা দিতে পারবেন মাত্র ১৬০ ইউরো খরচায়। যাদের স্টেট পারমিট (পেরমেসসো দি সোজ্জর্নো) ২০১৯ সালের ৩১ অক্টোবরের আগে মেয়াদোত্তীর্ণ হয়ে গিয়েছিল, এই ক্যাটাগরিতে শুধুমাত্র তাঁরাই কাজ খুঁজে নেয়ার জন্য ৬ মাসের বিশেষ স্টেট পারমিট পাবেন।

কাজ খুঁজে পেলে তা পরিবর্তন করে নেয়া যাবে নর্মাল স্টেট পারমিট হিসেবে। ধারনা করা হচ্ছে ইতালিতে প্রায় ৪০ হাজারেরও অধিক অবৈধ বাংলাদেশী বসবাস করছেন।গত ৮ বছর ধরে এসকল অভিবাসীরা ইতালিতে এসে সরকারের সানাতরিয়ার অপেক্ষায় আছেন।গত কয়েক বছরে শত শত বাংলাদেশী ইউরোপে প্রবেশের পথে প্রাণ হারিয়েছেন। শেষপর্যন্ত যারা ইতালি পৌঁছতে সক্ষম হয়েছেন এসকল অভিবাসীদের ইউরোপে বসবাসের স্বপ্ন পূরণ হতে চলছে।