প্রিমিয়ার লিগ জেতা প্রথম মিশরীয় মোহামেদ সালাহ

৩০ বছরের খরা ঘুচিয়ে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা জিতেছে লিভারপুল। ইংলিশ জায়ান্টদের এই ইতিহাস গড়ার পেছনে বড় ভূমিকা রেখেছেন মোহামেদ সালাহ। তারকা ফরোয়ার্ড নিজেও ভিন্ন এক ইতিহাস তৈরি করেছেন। মিশরীয় ফুটবলারদের মধ্যে ইতিহাসে প্রথম প্রিমিয়ার লিগ জেতার কীর্তি এখন তার দখলে।

সালাহ অবশ্য গত মৌসুমেও একটি ইতিহাস গড়েছিলেন। সেবার প্রথম মিশরীয় ফুটবলার হিসেবে চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতেছিলেন ‘মিশরীয় রাজা’। এছাড়া প্রথম সেনেগালিজ ফুটবলার হিসেবে সাদিও মানে এবং প্রথম গিনিয়ান ফুটবলার হিসেবে নেবি কেইতাও প্রিমিয়ার লিগ জেতার কীর্তিতে নাম লিখিয়েছেন।

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ জিতে ইতিহাস গড়ার পর এক টুইটে সালাহ লিখেছেন, ‘হ্যাঁ, দারুণ লাগছে। বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে যারা আমাদের সমর্থন দিয়েছেন তাদের ধন্যবাদ। আপনারা এটা সম্ভব করেছেন এবং আশা করি আমরা আপনাদের প্রাপ্য আনন্দ দেওয়া অব্যাহত রাখতে পারব। এখন তারা আমাদের বিশ্বাস করবে।’

মজার ব্যাপার হলো, সালাহ ঝুলিতে এর আগেও প্রিমিয়ার লিগ জেতার মেডেল যুক্ত হয়েছে, তবে সেটা অফিসিয়াল নয়। ২০১৪-১৫ মৌসুমে চেলসি শিরোপা জিতেছিল। ওই মৌসুমে চেলসির হয়ে মাত্র ৩ ম্যাচে মাঠে নামেন সালাহ। কিন্তু এফএ’র নিয়মানুযায়ী, চ্যাম্পিয়ন দলের মেডেল পেতে হলে কমপক্ষে ৫ ম্যাচ খেলতে হবে।

চেলসি চ্যাম্পিয়ন হলেও সেবার মেডেল পাওয়ার যোগ্যতা অর্জন করতে পারেননি সালাহ। এবং মৌসুমের শেষদিকে ধারে ফ্লোরেন্তিনায় খেলতে চলে গিয়েছিলেন। কিন্তু সালাহকে হতাশ হতে দেননি তৎকালীন চেলসি কোচ হোসে মরিনহো। পর্তুগিজ কোচ সেসময় অর্ডার দিয়ে একটি রেপ্লিকা মেডেল বানিয়ে আনেন শুধু সালাহ’র জন্য। আর এখন সালাহ সত্যিকারের মেডেলের মালিক।

এদিকে লিগের শিরোপা জিতে শুধু সালাহ একা নন, ইতিহাস গড়েছেন মানে ও কেইতাও। দুজনেই নিজ নিজ দেশের প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা জেতার গর্বিত অংশীদার। তাদের নিয়ে এ পর্যন্ত মোট ১৮ জন আফ্রিকান খেলোয়াড় প্রিমিয়ার লিগ জেতার স্বাদ পেলেন।